অটো টেম্পু স্ট্যান্ডের জায়গা দখলের প্রতিবাদে হোটেল ও সড়ক অবরোধ

প্রকাশিত: ৫:৩৬ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৩, ২০২১

আহসান হাবিব শিমুল (আদমদীঘি প্রতিনিধি)

বগুড়ার সান্তাহার জংশন শহরের ব্যস্ততম স্টেশন রোডে হোটেল ডিজিটাল স্টারের গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য, অটো টেম্পুর নির্ধারিত স্ট্যান্ড দখলের ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিক্ষুদ্ধ পরিবহন শ্রমিকরা সান্তাহার স্টেশন রোড এবং হোটেল ডিজিটাল স্টার প্রায় দেড় ঘন্টা অবরোধ করে রাখে। সোমবার দুপুরে হোটেল স্টারের অংশীদার মালিক ও কর্মচারীরা স্ট্যান্ড দখল করতে গেলে দুই পক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

জানা গেছে, সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সান্তাহার রেলওয়ে ভূমি কার্যালয়ের কানুনগোসহ কিছু লোকজন ও হোটেল স্টারের মালিক ও শ্রমিকরা হোটেলের সামনের ব্যস্ততম সড়কের পূর্ব পাশে থাকা অটো টেম্পু স্ট্যান্ড দখল করে দড়ি দিয়ে ঘিরে ফেলে। বিষয়টি দ্রুত শ্রমিকদের মধ্যে জানাজানি হলে কয়েক’শ অটো টেম্পু চালক-শ্রমিক ও মালিকার ঘটনাস্থলে সমবেত হয় এবং ওই সড়কে ও হোটেলের প্রবেশ পথে অটো টেম্পু রেখে অবরোধ করে দেয়। এসময় অবরোধ স্থানের দুই পাশে অসংখ্য যানবাহন আটকা পড়ে শহরে অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে সান্তাহার টাউন ফাড়ি ও আদমদীঘি থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে।

এসময় চালক-শ্রমিক ও মালিকরা রেলওয়ে পাকশী বিভাগীয় ভূসম্পত্তি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ প্রকাশ করতে থাকে। পরে বগুড়া জেলা অটো টেম্পু মালিক ও শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি নুর ইসলামের সাথে পুলিশের আলোচনার পর হোটেলের সামনের ফুটপাত থেকে হোটেল ব্যবসার সব সামগ্রী সরিয়ে ফেলার অঙ্গিকার করলে অবরোধ তুলে নেয়া হয়।

সান্তাহার শহর পুলিশের পরিদর্শক আরিফুল ইসলাম বলেন, কারো সাথে আলোচনা না করে রেলওয়ে ভূমি বিভাগ থেকে অটো টেম্পু স্ট্যান্ডের জায়গা হোটেলকে দেয়ায় এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। এ বিষয় নিয়ে যেন কোন প্রকার অরাজকতা সৃষ্টি না হয় সে বিষয়ে পুলিশ সতর্ক রয়েছে। হোটেল ডিজিটাল স্টারের মালিক গোলাম রব্বানি রানা বলেন, ওই জায়গা দখলের বিষয়ে আমি কিছু জানি না। আমার হোটেলের অংশিদার মালিক ফিরোজ চৌধুরী কি ভাবে এটা করেছে সেটাও আমার জানা নাই।