অবশেষে ঘরে ফিরল আলোচিত ছাগলটি

প্রকাশিত: ৯:০২ অপরাহ্ণ, মে ২৭, ২০২১

আহসান হাবিব শিমুল (আদমদীঘি প্রতিনিধি)

বগুড়ার আদমদীঘিতে পার্কের ফুল গাছ খাওয়ায় ছাগল আটকে রেখে মালিকের উপস্থিতি ছাড়া ভ্রাম্যমাণ আদালতে আর্থিক দন্ড এবং ধার্য দন্ডের অর্থ আদায় করতে ছাগল বিক্রির অভিযোগের ঘটনাটি তোলপাড় সৃষ্টি করেছে। বৃহস্পতিবার বিভিন্ন দৈনিক এবং অনলাইনে এ সংক্রান্ত খবর প্রকাশিত হলে সাধারণ মহলে এই তোলপাড় সৃষ্টি হয়। কিন্তু আজ দুপুর পর্যন্ত উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সীমা শারমিন তাঁর অবস্থানে অনড় ছিলেন বলে সরেজমিন সাক্ষাৎকারে দাবী করেছেন ছাগল মালিক সাহারা বেগম। তিনি বলেন এখনো আমাকে ছাগল ফিরিয়ে দেওয়া হয়নি।

এদিকে অচেনা এক ব্যক্তি নিজেকে সাংবাদিক পরিচয়ে ফোন করে, ধার্য দন্ডের দুই হাজার টাকা প্রদান এবং প্রদান করা টাকা ইউএনও অফিসে জমা দিয়ে ছাগল নিয়ে আসতে চাপ প্রয়োগ করছেন বলে জানান। সাহারা বেগম বলেন, ১৭ মে ছাগল আটক করা হয়। এরপর আমি পাঁচ দিনে ১০ বার ইউএনও’র কাছে গেছি। তিনি আমার সাথে খুব খারাপ ব্যবহার করার পাশাপাশি এক পর্যায়ে তাড়িয়ে দেন। এর ৪/৫ দিন পরে আমাকে লোক মারফত খবর দেওয়া হয় যে, ভ্রাম্যমাণ আদালতে দুই হাজার টাকার দন্ড দেওয়া হয়েছে। ইউএনও ম্যাডাম অবলা প্রাণী ছাগলটিকে ৫ দিন আটকে রাখার পর ২২ মে শনিবার বিক্রি করেছেন বলে তাঁর বাসার কাজের লোকের মাধ্যমে আমাকে জানানো হয়। কাজের লোক জানায় ছাগলটি পাঁচ হাজার টাকায় বিক্রি করা হয়েছে। ধার্য দন্ড দুই হাজার টাকা সরকারি কোষাগারে জমা দেওয়া হয়েছে। অবশিষ্ট তিন হাজার টাকা নিয়ে আসতে বলেছেন।

সাহারা বেগম দৃঢ় কন্ঠে বলেন, আমি ইউএনও অফিসে টাকা দিয়ে ছাগল নিব না। গাছ খাওয়ার অপরাধে খোয়াড়ে দিক। সেখানে যে টাকা লাগবে সে টাকা দিয়ে ছাগল নিয়ে আসব। অপর দিকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সীমা শারমিন বলেন ছাগল মালিককে ৩/৪ দিন সতর্ক করে দেওয়ার পর ছাগল বেঁধে না রাখায় গণ-উপদ্রপ আইনে ভ্রাম্যমাণ আদালতের আওতায় আর্থিক দন্ড দেওয়া হয়েছে। জরিমানার টাকা জমা দিলে তবেই ছাগল ফিরিয়ে দেওয়া হবে।

কিন্তু আজ বিকেলের পর জরিমানা ছাড়াই ছাগল ফেরতের মাধ্যমে আলোচিত ঘটনাটির সমাপ্তির কথা জানা যায়। বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৫ টার দিকে উপজেলা চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম খান, স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মী ও গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে ওই নারীকে ছাগল ফেরত দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। ভুক্তভোগী ছাগল মালিক জরিমানার টাকা ছাড়াই ছাগল ফেরত পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।