আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশি শহীদ ডাঃ আয়নাল হকের ছেলে কে এম জাকিরের মত বিনিময় সভা 

প্রকাশিত: ৫:০২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৬, ২০২৩

বিশেষ প্রতিনিধি।

সংসদীয় আসন ৬১,নাটোর-৪ (গুরুদাসপুর-বড়াইগ্রাম) আসনে আগামী জাতীয় দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী শহীদ ডাক্তার আয়নাল হকের জেষ্ঠ্য পুত্র বনপাড়া পৌর মেয়র কে এম জাকির হোসেন সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা করেছেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে চাঁচকৈড় বাজারের সাথী রান্না ঘরে উপজেলাবাসীর পক্ষ থেকে এই মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। মতবিনিময়কালে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন বাস্তবায়ণ, স্মার্ট বাংলাদেশ বির্নিমানে অবদান রাখতে ও গুরুদাসপুর-বড়াইগ্রাম উপজেলার সার্বিক উন্নয়নসহ জনকল্যাণে নিবেদিত থেকে কাজ করার লক্ষ্য নিয়েই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে চান তিনি। এছাড়া দারিদ্র্য, দুর্নীতি ও মাদকমুক্ত দেশ গঠনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দলীয় প্রধান দেশের সফল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে নাটোর-৪ আসনে আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশি।

বৃহস্পতিবার সকালে নাটোর ৪ আসনের প্রয়াত সংসদ সদস্য অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুসের কবরে দোয়া ও মোনাজাতের মাধ্যমে স্থানীয়দের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় ও লিফলেট বিতরণ করেন। সব নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের কাছে গুরুদাসপুর-বড়াইগ্রামের উন্নয়নে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দেন এই নেতা।

লিফলেট বিতরণ ও গণসংযোগের সময় গুরুদাসপুর উপজেলার মানুষের হাতে দেশ রত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের লিফলেট বিতরণ সহ সকল উন্নয়নমুলক কর্মকান্ড তুলে ধরে গ্রাম ও শহরের অলিগলিতে বক্তব্য রেখে চলছেন তিনি।

সাংবাদিকদের প্রশ্নত্তোর পর্বে বনপাড়া পৌর সভার তিন বারের মেয়র জাকির হোসেন বলেন, তার পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ ডাক্তার আয়নাল হক তিন বারের ইউপি চেয়ারম্যান বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর ছিলেন। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা ও আমুত্যু সামাজিক প্রতিষ্ঠানের সভাপতি ছিলেন। ২০০২ সালে ২৯ মার্চ তৎকালিন বিএনপি জামায়াত জোট সরকারের সন্ত্রাসীরা শুধু মাত্র রাজনৈতিক কারনে বনপাড়া বাজারে প্রকাশ্য দিবালকে তাকে কুপিয়ে হত্যা করে।তাঁর প্রয়াত পিতার স্মরণ সভায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা, আ.লীগের প্রয়াত সাধারণ সম্পাদক আব্দুল জলিল, সভাপতি মন্ডলীর সদস্য প্রয়াত মোহাম্মদ নাসিম উপস্থিত থেকে তাদের পরিবারকে গর্বিত করেছিলেন। তিনি বলেন ছাত্র জীবন থেকেই জেলা উপজেলার দলের বিভিন্ন গুরুত্বপুর্ণ পদে থেকে সকল আন্দোলন সংগ্রামে দলের প্রথম সারিতে নেতৃত্ব দিয়ে আসছি। এছাড়া রাজনৈতিক আদর্শ এবং একজন কলেজ শিক্ষক হিসেবে অন্যায়ের সাথে আপোষ করিনি কখনো। তাই আগামী নির্বাচনে দল থেকে মনোয়ন পেলে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তি শালী করে দেশের উন্নয়নের অংশিদার হতে পারবো ইনশাল্লাহ।