বিমান লন্ডন যাবে ২১ জুন, কাতার এয়ারওয়েজ এখনো সিদ্ধান্ত নেয়নি

আন্তর্জাতিক রুট খুলে দিলেও কাল থেকে ফ্লাইট চালুর সম্ভাবনা কম?

প্রকাশিত: 11:22 PM, June 15, 2020

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস মহামারীতে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট তিন মাস বন্ধ থাকার পর কাল ১৬ জুন (মঙ্গলবার) খুলে দিচ্ছে। বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমান সম্প্রতি এক বিবৃতিতে এই সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন। তবে সংশ্লিস্ট সুত্রে জানাগেছে ফ্লাইট চালুর ঘোষনা দিলেও কাতার এয়ারওয়েজ ফ্লাইট নিয়ে বাংলাদেশে আসবে কিনা সেই বিষয়টি এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। অপর দিকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স কাল থেকে ফ্লাইট পরিচালনা করতে পারবে না। বিমান আগামী ২১ জুন থেকে ঢাকা লন্ডন রুটে ফ্লাইট শুরু করার সম্ভাবনা আছে।এই রুটে বিমান সপ্তাহে একটি ফ্লাইট পরিচালণা করবে বলে জানাগেছে।

এদিকে বাংলাদেশের সিভিল এভিয়েশনের সঙ্গে কাতার এয়ারওয়েজের ফ্লাইট পরিচালণা নিয়ে নেগোসিয়েশন না হওয়ায় তারাও কাল থেকে ফ্লাইট চালানোর সম্ভবনা কম। সুত্র মতে কাতার এয়ারওয়েজ বাংলাদেশ থেকে দৈনিক ২টি ফ্লাইট চালানোর জন্য সিভিল এভিয়েশনের কাছে আবেদন জানিয়েছিল। কিন্তু সিভিল এভিয়েশন কতৃপক্ষ থেকে তাদের সপ্তাহে দুটি ফ্লাইট চালানোর পারমিশন দিয়েছে।

কাতার এয়ারওয়েজের একজন স্টাফ এভিয়েশন নিউজকে বলেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে তারা শুধুমাত্র ট্রানজিট যাত্রী পরিচালনা করতে পারবে। অর্থাৱ বাংলাদেশ থেকে যাত্রী নিয়ে কাতার বিমানবন্দর পর্যন্ত নিতে পারবে। বিমানবন্দর থেকে আবার তাদের বিভিন্ন গন্তব্যে পেৌছে দিতে হবে। কাতার এয়ারওয়েজের বক্তব্য যদি তারা দৈনিক দুটি ফ্লাইট চালাতে পারতো তাহলে তাদের ট্রানজিট চালাতে কোন সমস্যা হতো না। কিন্তু সপ্তাহে মাত্র ২টি ফ্লাইট চালালে তাদের পক্ষে ট্রানজিট চালানো লাভজনক হবে না। একারণে তারা কাল থেকে ফ্লাইট নাও চালাতে পারেন। জানাগেছে আগে কাতার এয়ারওয়েজ ঢাকা থেকে দৈনিক ৩টি ফ্লাইট চালাতো।

সিভিল এভিয়েশনের একজন মুখপাত্র জানান, আগামী ১৬ জুন থেকে সীমিত আকারে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট পরিচালনার জন্য আমরা হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর খুলে দিচ্ছি।

প্রথমে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এবং কাতার এয়ারওয়েজ লন্ডন ও কাতার থেকে ফ্লাইট পরিচালনা করবে বলে জানান তিনি।

তবে কাতার এয়ারওয়েজের ক্ষেত্রে কিছু বিধি-নিষেধ থাকছে জানিয়ে বেবিচক চেয়ারম্যান বলেন, “কাতার শুধু ট্রানজিট প্যাসেঞ্জার বহন করবে। আর বিমান ঢাকা থেকে লন্ডনে সাধারণ যাত্রী বহন করতে পারবে। কাতার তাদের দেশে প্রবেশ এলাউ করছে না। আমরা এজন্য কাতারকে এলাউ করব না। সেজন্যই আমরা চাচ্ছি না যে কাতার থেকে কেউ চলে আসুক।”

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে গত ১৬ মার্চ থেকে যুক্তরাজ্য ছাড়া ইউরোপের অন্য সব দেশ থেকে যাত্রীদের আসা বন্ধ করে বাংলাদেশ। পরে অন্যান্য দেশের সঙ্গেও ফ্লাইট চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।