কেমন হবে করোনা পরবর্তী অনলাইন ব্যবসা?

প্রকাশিত: 7:17 PM, May 29, 2020

কোভিড-19 বা করোনাভাইরাস, মানবসমাজের জন্য অভিশাপ হিসেবেই আবির্ভূত হয়েছে এবং এখনো তার করালগ্রাসে ঝরে পড়ছে একের পর এক অমূল্য প্রাণ। সারা বিশ্ব আতংকিত এবং অর্থনৈতিক ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়ার উপক্রম হয়েছে। সেই সাথে আরেকটি বিষয় কিন্তু না চাইতেও সামনে চলে আসছে। বিশ্বময় লকডাউনের এই সময়টি যত দীর্ঘ হচ্ছে বিভিন্ন ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা কাঠামো কিন্তু ততই বদলে যাচ্ছে। সেই সাথে বদলে যাচ্ছে ভোক্তা আচরন ও তাদের ক্রয় কাঠামোর ধরন।

আমরা ইতোমধ্যে দেখেছি জুম (অনলাইন মিটিং প্লাটফর্ম) কোটি কোটি ব্যবহারকারীর প্রিয় প্লাটফর্মে পরিণত হয়ে রাতারাতি ২৯ বিলিয়ন ডলারের কোম্পানিতে রূপান্তরিত হয়েছে। এই চরম অর্থনৈতিক মন্দার মধ্যেও নেটফ্লিক্স (অনলাইন মুভি প্লাটফর্ম) এর শেয়ার মূল্য বেড়েছে ১৪%। ইউডেমি, লিন্ডা, টেন মিনিট স্কুলসহ বিভিন্ন অনলাইন লার্নিং প্লাটফর্ম পাচ্ছে নতুন লাখো গ্রাহক।

যে সকল প্রতিষ্ঠানগুলোতে ফিজিক্যাল মিটিং বা অফিসে উপস্থিতি বাদে কাজের কথা কল্পনাই করা যেত না, তারাও এখন অনলাইনের মাধ্যমে কাজে অভ্যস্ত হচ্ছে। অনেক প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা খরচ নিয়ন্ত্রণ ও ব্যাবস্থাপনায় বাসায় থেকে কাজ করা ও আউটসোর্সিং এর সাথে জড়িত বিষয়গুলোকে নিয়ে ভালোভাবে চিন্তাভাবনা করা শুরু করেছে।

এই দীর্ঘ সময় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার অভ্যাস পরবর্তীতে অনলাইনে কেনাকাটার হার বাড়িয়ে দিবে বলেই ধারণা করছেন বিশেষজ্ঞরা। গত কয়েক দশকে মানুষ যেই পরিমাণে পরিচ্ছন্নতা সচেতন ছিল তারচেয়ে অনেক বেশি পরিচ্ছন্নতা সচেতন হয়েছে এই কোভিড-19 দুর্যোগের সময়ে। আগামীর দিনগুলোতে ক্রেতার ক্রয় কেন্দ্রিক আচরণে এর বড়সড় একটি প্রভাব পড়বে এতে কোনো সন্দেহ নেই।

ব্যাংকগুলো এসএমএস, মেইলসহ বিভিন্ন উপায়ে তাদের সেবাগ্রহীতাদের অনলাইন চ্যানেল ব্যাবহার করায় উৎসাহ দিচ্ছে, অনুরোধ করছে। ডাক্তাররাও অনেক ক্ষেত্রে টেলিমেডিসিনকে উৎসাহিত করছেন নিজেদের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করেই। এমনকি সাধারণ মানুষও আশা করছেন একটি ফোন কলে কিংবা কয়েকটি ক্লিকে উনাদের নিত্যপ্রয়োজনীয় বাজারটি যেন ঘরে পৌঁছে যায়। বেশ কিছু সামাজিক সংস্থা ও ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান এ ধরনের সেবা প্রদান সীমিত আকারে হলেও শুরু করেছেন। অনেকগুলো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান অনলাইনেই ক্লাস থেকে শুরু করে এমনকি পরীক্ষাও এখন অনলাইনে নিচ্ছেন।

অন্য অনেক ক্ষেত্রে ধ্বস নামিয়ে আনলেও কোভিড-19 সারাবিশ্বজুড়ে ডিজিটালাইজেশন প্রক্রিয়াকে এক নতুন উচ্চতায় স্থাপন করতে যাচ্ছে এতে কোন সন্দেহ নেই। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে যে সকল ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান বা দেশ নিজেদের মানোন্নয়নে পিছিয়ে থাকবেন তাদের জন্য আগামীর দিনগুলোতে বেশ বড়সড় দুঃসংবাদ অপেক্ষা করছে।

আপনি বা আপনার প্রতিষ্ঠান কতটুকু প্রস্তুত নতুন দিনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায়?

মো. তানভীর রেজোয়ান

(ডিজিটাল মার্কেটিং স্ট্রাটেজিস্ট)

সিইও, সেন্টার অব ডিজিটাল মার্কেটিং।