খাগড়াছড়িতে স্বাস্থ্য সাংবাদিকতা বিষয়ক প্রশিক্ষণ ও মানোন্নয়ন বিষয়ক মতবিনিময় সভা

প্রকাশিত: ১১:২৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৭, ২০২২

খোকন বিকাশ ত্রিপুরা জ্যাক,খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ি জেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরাম ও জাবারাং কল্যাণ সমিতি কর্তৃক আয়োজিত বাংলাদেশ হেলথ ওয়াচ এর সহযোগিতায় স্বাস্থ্য সাংবাদিকতা বিষয়ক দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।এতে প্রতিপাদ্য ছিল <img "স্বাস্থ্যসেবার মানোন্নয়নে চাই সমতা,জবাবদিহিতা ও অংশগ্রহণ "।বুধবার(২৭জুলাই)পৌরসভা সম্মেলন কক্ষে দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধন করেন জেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরাম'র সহ-সভাপতি ও খাগড়াছড়ি আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অংপ্রু মারমা।

দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ চলাকালে সঞ্চালনার দায়িত্বে ছিলেন জাবারাং কল্যাণ সমিতির প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর বিনোদন ত্রিপুরা।প্রশিক্ষক হিসেবে ছিলেন দৈনিক প্রথম আলো পত্রিকার সাংবাদিক,লেখক ও গবেষক শিশির মোড়ল। প্রধান আলোচক হিসেবে আইডিসিআর'র সাবেক পরিচালক ড. এ এম জাকির হোসেন।

এ স্বাস্থ্য সাংবাদিকতা বিষয়ক প্রশিক্ষণে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য সাংবাদিকতা,স্বাস্থ্য সাংবাদিকতা ও মেডিকেল সাংবাদিকতা,স্বাস্থ্য সাংবাদিকতার অবস্থান,যেমন পাঠক,দর্শক ও শ্রোতার পছন্দের ক্রম,সাংবাদিকতার মানসহ স্বাস্থ্য সাংবাদিকতা সম্পর্কিত নানান বিষয়ে আলোকপাত করা হয়।

প্রশিক্ষণ শেষে পরে সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে সনদপত্র বিতরণ করেন পৌরসভার মেয়র নির্মলেন্দু চৌধুরী।

এ প্রশিক্ষণে খাগড়াছড়ি প্রেসক্লাবের সভাপতি জিতেন বড়ুয়া,খাগড়াছড়ি সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মোঃ নুরুল আজম,সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি প্রদীপ চৌধুরী,বাংলাদেশ হেলথ ওয়াচের কর্মসূচি কর্মসূচির কর্মকর্তা নওশিন মৌলি ওয়ারেসী,সাধারণ সম্পাদক সৈকত দেওয়ানসহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

অপরদিকে,একইদিনে মহালছড়ি উপজেলায় স্বাস্থ্যসেবার মানোন্নয়ন বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকাল ১০ টায় বাংলাদেশ হেলথ ওয়াচ-এর সহযোগিতায় এবং জাবারাং কল্যাণ সমিতি ও মহালছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরাম কর্তৃক মহালছড়ি সদর ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে আয়োজিত স্বাস্থ্যসেবার মানোন্নয়ন বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরাম’র সভাপতি মো: শাহাজাহান পাটোয়ারীর সভাপতিত্বে এবং জেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের সভাপতি সাধন কুমার চাকমার স্বাগত বক্তব্যের মধ্য দিয়ে সূচিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহালছড়ি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বিমল কান্তি চাকমা

সভায় জাবারাং কল্যাণ সমিতির নির্বাহী পরিচালক মথুরা বিকাশ ত্রিপুরা’র সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি বক্তবে বিমল কান্তি চাকমা বলেন, সরকার সারাদেশের ন্যায় মহালছড়ি উপজেলায়ও স্বাস্থ্য কাতে সার্বিক উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। পূর্বের তুলনায় এখন পথঘাটসহ যোগাযোগ অবকাঠামোর অনেক উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। তারপরেও মহালছড়ি উপজেলার স্বাস্থ্যসেবার মান এখনো আশানুরূপ উন্নয়ন হয়নি। তিনি উপজেলার স্বাস্থ্য সেবার মান উন্নয়নে পার্বত্য জেলা পরিষদসহ সদাশয় কর্তৃপক্ষের নিকট উপজেলা স্বাস্থ্য কম্প্লেক্সের ডাক্তারদের ২৪ ঘন্টা অবস্থানের সুবিধার্থে জেলা পরিষদ কর্তৃক নিবিড় তদারকি, ডাক্তারদের জন্য আবাসিক ভবন নির্মাণ, স্বাস্থ্য বিভিন্ন যন্ত্রপাতি স্থাপনসহ উপযোগী পরিবেশ সৃষ্টির জন্য আহবান জানান।

তিনি বলেন, সরকারী স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি বেসরকারীভাবেও মহালছড়িতে একটি ডায়গনষ্টিক সেন্টার গড়ে তোলা জরুরী, যাতে এখানকার রোগীদেরকে খাগড়াছড়ি শহরের উপর নির্ভরশীল হতে না হয়। সকলের মাঝে সমন্বয় সুদৃঢ় হলে আস্তে ধীরে হলেও আগামীতে এ উদ্যোগ নিতে হবে বলে তিনি মত প্রকাশ করেন।

সভায় বিশেষ অতিথি বক্তারা বলেন, স্থানীয় পর্যায়ে স্বাস্থ্য অধিকার, স্বাস্থ্যসেবার মানোন্নয়নে জনসচেতনতা, স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা বৃদ্ধি এবং সকল পর্যায়ে জনঅংশগ্রহণ নিশ্চিত করে স্বাস্থ্যসেবায় টেকসই উন্নয়নে সহায়ক পরিবেশ সৃষ্টি করতে জেলা ও উপজেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের সাথে একযোগে কাজ করতে হবে। বক্তারা সেবাপ্রদানকারী ও সেবা গ্রহণকারী সকলের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় এই সমস্যাগুলো সমাধান করার আহ্বান জানান। মহালছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স’র মেডিকেল অফিসার ডা: ইফতেখার আহমেদ তাঁর হাসপাতালের চিকিৎসা সেবার সুযোগ-সুবিধা ও কিছু সমস্যার কথা তুলে ধরেন।

এ সময় জেলা ও উপজেলা স্বাস্থ্য অধিকার যুব ফোরাম-এর উদ্যোগে রক্ত গ্রুপ নির্ণয় অভিযান অনুষ্ঠিত হয়। এতে শতাধিক ছাত্র-যুব ও সাধারণ নাগরিক তাদের ব্লাড গ্রুপ নির্ণয় করেন।

এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো: জসীম উদ্দীন, মহালছড়ি সদর ইউপি চেয়ারম্যান রতন কুমার শীল, বাংলাদেশ হেলথ ওয়াচের উপদেষ্টা ড: ইয়াসমিন আহমেদ, আহ্বায়ক ড. আহমেদ মোস্তাক রেজা চৌধুরী, প্রোগ্রাম ডিরেক্টর শেখ মাসুদুল আলম প্রমুখ।এছাড়াও জাবারাং কল্যাণ সমিতির প্রশাসনিক কর্মকর্তা ধনেশ্বর ত্রিপুরা,নারী কার্বারি ভৌমিকা ত্রিপুরা, বিনয় কুমার শাস্ত্রী ও সফরসঙ্গীরা উপস্থিত ছিলেন।