ঢাকা, ১৮ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | ২০শে মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

খুচরা বেচাকেনা পাইকারি মার্কেটে


প্রকাশিত: ৯:৫৫ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৩০, ২০২১

রাজধানীর গুলিস্তান, ফুলবাড়িয়া, বঙ্গবাজার, ইসলামপুরের কাপড় এবং জুতা মার্কেট পাইকারি বেচাকেনার জন্য সুপরিচিত। কিন্তু এবার এই এলাকার মার্কেটগুলোতে পাইকারের দেখা নেই। এখন খুচরায় বিক্রি করছেন দোকানিরা।

ব্যবসায়ীরা জানান, করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে চলমান লকডাউনের কারণে সারাদেশে গণপরিবহন বন্ধ রয়েছে। এতে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে পাইকাররা মালামাল কিনতে আসছেন না। দোকানের খরচ মেটাতেই খুচরা বেচাকেনা করতে হচ্ছে। এভাবে চলতে থাকলে ব্যবসায়ীদের পথে বসতে হবে।

বঙ্গবাজার সংলগ্ন এনেস্কো টাওয়ার নিচতলায় গার্মেন্টসের দোকান লাতু ট্রেডার্স। এই দোকানের ব্যবস্থাপক জাকির হোসেন বলেন, সাধারণত এই মৌসুমে পহেলা বৈশাখ ও ঈদুল ফিতরকে ঘিরে পোশাকের ব্যবসা চাঙা হয়। অথচ লকডাউনের কারণে এবার ব্যবসায় মন্দা লেগেছে। ঢাকার বাইরে ক্রেতাদের দেখা মিলছে না।

আজকাল

এই মার্কেটে খুচরা ক্রেতাদের ভিড়। প্যান্ট, শার্ট, পাঞ্জাবি, লুঙ্গিসহ বিভিন্ন ধরনের কাপড় দরদাম করে কেনাকাটা করছেন তারা। দোকানিরাও বেশি দামাদামি না করে সামান্য কিছু লাভে বিক্রি করছেন বলে জানিয়েছেন।

বঙ্গবাজার সুপার মার্কেটের সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, গত বছর করোনার কারণে রমজান এবং কুরবানির ঈদের মার্কেটে বেচাকেনা বন্ধ ছিল। ব্যবসায়ীরা ভেবেছিল এবার পরিস্থিতি ভালো থাকবে। তাই পর্যাপ্ত পরিমাণ মালামাল কিনে গোডাউনে রেখেছেন। কিন্তু এখন এসব মালামাল বিক্রি করতে পারছেন না। কারণ এই এলাকার মার্কেটগুলোতে খুচরা বেচাকেনা খুবই কম।

গুলিস্তানের ঢাকা ট্রেড সেন্টার উত্তর, ঢাকা ট্রেড সেন্টার দক্ষিণ, গুলিস্তান শপিং কমপ্লেক্স এবং ফুলবাড়িয়া সুপারমার্কেট-২ (নগর প্লাজা, জাকের প্লাজা, সিটি প্লাজা) পাইকারি কাপড় এবং জুতা বিক্রির জন্য বিখ্যাত। এই মার্কেটগুলোতেও পাইকারি তেমন বেচাকেনা নেই। তবে কিছু গার্মেন্টসের দোকানে খুচরা বেচাকেনায় ভিড় দেখা গেছে।