গুইমারায় তৈমাচাং অনিতা চৌধুরী বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় উদ্বোধন করেছেন;অদুল কান্তি চৌধুরী

প্রকাশিত: ১০:১০ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৪, ২০২১

খোকন বিকাশ ত্রিপুরা জ্যাক,খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ির জেলার গুইমারা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড বিদ্যালয় বিহীন দুর্গম এলাকা ব কেমরুং পাড়ায় শিক্ষা উন্নয়ন সংস্থা ও ত্রিপুরা সনাতনী গীতা সংঘ’র সার্বিক তত্বাবধানে এবং অদুল-অনিতা ট্রাস্টের অর্থায়নে নির্মিত তৈমাচাং অনিতা চৌধুরী বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে।

শুক্রবার(৩ডিসেম্বর)দুপুরে বিদ্যালয়টি শুভ উদ্বোধন করেন অদুল-অনিতা ট্রাস্টের চেয়ারম্যান অদুল কান্তি চৌধুরী এবং সফরসঙ্গী হিসেবে ছিলেন তাঁর সহধর্মিণী ও অদুল-অনিতা ট্রাস্টের কো-চেয়ারম্যান অনিতা চৌধুরী।এতে প্রতিপাদ্যের বিষয় ছিল,’শিক্ষার আলো,ঘরে ঘরে জ্বালো,গীতার আলো, ঘরে ঘরে জ্বালো”।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শিক্ষা উন্নয়ন সংস্থার সাধারণ সম্পাদক জয় প্রকাশ ত্রিপুরা’র সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে অদুল কান্তি চৌধুরী বলেন,শিক্ষাই জাতির মেরুদন্ড,শিক্ষা ছাড়া কোন জাতি,সমাজ এবং দেশ এগিয়ে যেতে পারেনা।আমাদের জীবনমান উন্নয়নের শিক্ষার কোন বিকল্প নেই।
তিনি গ্রামের সকল অভিভাবকদের তাদের সন্তানকে নিয়মিত বিদ্যালয়ে প্রেরণের আহ্বান জানান এবং শিক্ষার্থী সংখ্যা বৃদ্ধির প্রেক্ষিতে ভবিষ্যতে এই জায়গায় একটি উচ্চ বিদ্যালয় ও ছাত্রাবাস নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দেন। পাশাপাশি তিনি এলাকার পানীয় জলের সংকট নিরসনে দ্রুত ভিত্তিতে নলকূপ স্থাপন করে দেয়ার জন্য আশ্বাস দেন।

পরে উনার সহধর্মিণী অনিতা চৌধুরী তাঁর বক্তব্যে স্কুলের সার্বিক কার্যক্রম পরিচালনায় সবসময় পাশে থাকার আশ্বাস দেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ১ নং গুইমারা ইউনিয়ন পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান নির্মল নারায়ণ ত্রিপুরা বলেন,এই এলাকার রাস্তাঘাট সংস্কার ও টিউবওয়েল বসানোর বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার জন্য আশ্বাস দেন।গুইমারা উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান ঝর্ণা ত্রিপুরা জানানকেমরু পাড়া এলাকার সকল ধরণের সমস্যা সমাধানে যথাসাধ্য কাজ করে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

এ সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ত্রিপুরা সনাতনী গীতা সংঘের সভাপতি প্রভাংশু ত্রিপুরা, শংকর মঠ ও মিশনের সাধারণ সম্পাদক কেশব কুমার সরকার, শিক্ষা উন্নয়ন সংস্থার সমন্বয়ক নবলেশ্বর দেওয়ান লায়ন, বিশ্ব হিন্দু পরিষদের যুগ্ম সম্পাদক দেবব্রত দেবনাথ জুয়েল প্রমুখ।

এ উপলক্ষ্যে আয়োজিত বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ বিতরণ কার্যক্রমের আওতায় ১০ জন অভিজ্ঞ ডাক্তারের মাধ্যমে প্রায় ৮ শতাধিক মানুষকে চিকিৎসা ও ঔষধ বিতরণ করা হয়।

গুইমারায় তৈমাচাং অনিতা চৌধুরী বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় উদ্বোধন করেছেন;অদুল কান্তি চৌধুরী

খোকন বিকাশ ত্রিপুরা জ্যাক,খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ির জেলার গুইমারা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড বিদ্যালয় বিহীন দুর্গম এলাকা ব কেমরুং পাড়ায় শিক্ষা উন্নয়ন সংস্থা ও ত্রিপুরা সনাতনী গীতা সংঘ’র সার্বিক তত্বাবধানে এবং অদুল-অনিতা ট্রাস্টের অর্থায়নে নির্মিত তৈমাচাং অনিতা চৌধুরী বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে।

শুক্রবার(৩নভেম্বর)দুপুর ১২টায় বিদ্যালয়টি শুভ উদ্বোধন করেন অদুল-অনিতা ট্রাস্টের চেয়ারম্যান অদুল কান্তি চৌধুরী এবং সফরসঙ্গী হিসেবে ছিলেন তাঁর সহধর্মিণী ও অদুল-অনিতা ট্রাস্টের কো-চেয়ারম্যান অনিতা চৌধুরী।এতে প্রতিপাদ্যের বিষয় ছিল,’শিক্ষার আলো,ঘরে ঘরে জ্বালো,গীতার আলো, ঘরে ঘরে জ্বালো”।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শিক্ষা উন্নয়ন সংস্থার সাধারণ সম্পাদক জয় প্রকাশ ত্রিপুরা’র সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে অদুল কান্তি চৌধুরী বলেন,শিক্ষাই জাতির মেরুদন্ড,শিক্ষা ছাড়া কোন জাতি,সমাজ এবং দেশ এগিয়ে যেতে পারেনা।আমাদের জীবনমান উন্নয়নের শিক্ষার কোন বিকল্প নেই।
তিনি গ্রামের সকল অভিভাবকদের তাদের সন্তানকে নিয়মিত বিদ্যালয়ে প্রেরণের আহ্বান জানান এবং শিক্ষার্থী সংখ্যা বৃদ্ধির প্রেক্ষিতে ভবিষ্যতে এই জায়গায় একটি উচ্চ বিদ্যালয় ও ছাত্রাবাস নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দেন। পাশাপাশি তিনি এলাকার পানীয় জলের সংকট নিরসনে দ্রুত ভিত্তিতে নলকূপ স্থাপন করে দেয়ার জন্য আশ্বাস দেন।

পরে উনার সহধর্মিণী অনিতা চৌধুরী তাঁর বক্তব্যে স্কুলের সার্বিক কার্যক্রম পরিচালনায় সবসময় পাশে থাকার আশ্বাস দেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ১ নং গুইমারা ইউনিয়ন পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান নির্মল নারায়ণ ত্রিপুরা বলেন,এই এলাকার রাস্তাঘাট সংস্কার ও টিউবওয়েল বসানোর বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার জন্য আশ্বাস দেন।গুইমারা উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান ঝর্ণা ত্রিপুরা জানানকেমরু পাড়া এলাকার সকল ধরণের সমস্যা সমাধানে যথাসাধ্য কাজ করে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ত্রিপুরা সনাতনী গীতা সংঘের সভাপতি প্রভাংশু ত্রিপুরা, শংকর মঠ ও মিশনের সাধারণ সম্পাদক কেশব কুমার সরকার, শিক্ষা উন্নয়ন সংস্থার সমন্বয়ক নবলেশ্বর দেওয়ান লায়ন, বিশ্ব হিন্দু পরিষদের যুগ্ম সম্পাদক দেবব্রত দেবনাথ জুয়েল প্রমুখ।

এ উপলক্ষ্যে আয়োজিত বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ বিতরণ কার্যক্রমের আওতায় ১০ জন অভিজ্ঞ ডাক্তারের মাধ্যমে প্রায় ৮ শতাধিক মানুষকে চিকিৎসা ও ঔষধ বিতরণ করা হয়।