গ্রেনেড হামলা দিবস উপেক্ষা করে আওয়ামীলীগ নেতার নৌকা ভ্রমণ

প্রকাশিত: ৭:০৬ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২২, ২০২১

আহসান হাবিব শিমুল (আদমদীঘি প্রতিনিধি)

শনিবার বগুড়ার আদমদীঘিতে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা দিবস উপেক্ষা করে উপজেলা আওয়ামীলীগের সদ্য সাবেক সহ-সভাপতি ও সান্তাহার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এরশাদুল হক টুলুর বিরুদ্ধে নৌকা ভ্রমণ করার অভিযোগ মিলেছে। তাকে আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠন আয়োজিত কোন কর্মসূচিতে উপস্থিত থাকতে দেখা যায়নি।

শনিবার উপজেলা আওয়ামীলীগ ও যুবলীগের উদ্যোগে গ্রেনেড হামলা দিবস উপলক্ষ্যে দিনব্যাপী নানা কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। কিন্তু তিনি কর্মসূচি গুলোতে উপস্থিত না থাকায় আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীদের মাঝে আলোচনা সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে। দেখা দিয়েছে ক্ষোভ।

জানা গেছে, ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট ঢাকার বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে শনিবার সারা দেশের মত বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে সদর ইউনিয়নের দলীয় কার্যালয়ে এবং সান্তাহার পৌর কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত, জাতীয় ও কালো পতাকা উত্তোলন শেষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল করা হয়। বিকেলে উপজেলা যুবলীগ সান্তাহার স্বাধীনতা মঞ্চে শোক ও স্মরণ সভার আয়োজন করে। দলীয় এসব কর্মসূচি ও অনুষ্ঠানে আদমদীঘি উপজেলার সকল নেতা কর্মী অংশগ্রহণ করলেও আওয়ামীলীগের সদ্য সাবেক কমিটির সহ-সভাপতি ও সান্তাহার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এরশাদুল হক টুলুকে কেউ কোথাও দেখতে পায়নি। পরে সবাই খোঁজ নিয়ে জানতে পারে তিনি দলীয় কর্মসূচি ও অনুষ্ঠানাদি উপেক্ষা করে বন্ধুদের নিয়ে নৌকা ভ্রমণের আড্ডায় মেতে উঠেছিলেন। আওয়ামীলীগের নেতা ও আওয়ামীলীগের সমর্থনে নির্বাচিত ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হিসাবে দলীয় কর্মসুচি অনুষ্ঠান উপেক্ষা করা নিয়ে নেতাকর্মীদের মাঝে আলোচনা সমালোচনার ঝড় উঠেছে। দেখা দিয়েছে ক্ষোভ-বিক্ষোভ।

এ বিষয়ে আদমদীঘি উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট শেখ কুদরত ই এলাহি কাজল গণমাধ্যম কর্মীদের বলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক কমিটির সহ-সভাপতি এরশাদুল হক টুলু এদিনের দলীয় কোন কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন না।