জিয়ার ধানের শীষ বাংলাদেশের মানুষের কাছে আজও এতো প্রিয়- মির্জা ফখরুল

প্রকাশিত: 4:58 PM, June 1, 2020

করোনা ভাইরাস মহামারী কারণে পরিবর্তিত পরিস্থিতিকে নিয়েই ‘অবরুদ্ধ গণতন্ত্রের মুক্তির’ প্রত্যাশা করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
শনিবার বিকালে এক ভার্চুয়াল আলোচনায় তিনি বলেন, “একেকটা এই ধরনের মহামারীর পরে পরিবর্তন আসে, যুগের পরিবর্তন হয়, সভ্যতার পরিবর্তন হয়ে যায়। আসুন আজকে আমরা সবাই মিলে এই পরিবর্তনকে সামনে নিয়ে এগিয়ে যাই।”

“গণতন্ত্রের মুক্তি হোক এবং মানুষের মুক্তি হোক। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া মুক্তি পাক এবং পরিপূর্ণভাবে বাংলাদেশ মুক্তি পাক- এই হল আজকে আমাদের অঙ্গীকার।”

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৩৯তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ভার্চুয়াল এই আলোচনা হয়। বিকাল সাড়ে তিনটায় আলোচনা শুরু হয়ে শেষ হয় বিকাল ৫টায়।

নেতারা জানান, গুলশানে ‘ফিরোজা’য় দলের চেয়ারপারসন অসুস্থ খালেদা জিয়া ও লন্ডন থেকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান এই ভার্চুয়াল আলোচনা সভা শোনেন।

জিয়াউর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে বিএনপি মহাসচিব ফখরুল বলেন, “জিয়াউর রহমান সাহেবের সবচেয়ে বড় অবদান তিনি এই জাতিকে একটি স্বাতন্ত্র দিয়েছিলেন, একটি পরিচয় দিয়েছিলেন। সেজন্য যখন তিনি শাহাদাত বরণ করলেন, তার জানাজায় লক্ষ লক্ষ ক্রন্দনরত মানুষের সামনে ইমাম সাহেব আল্লাহর দরবারে হাত তুলে এই কথা প্রার্থনা করলেন যে, আল্লাহ বাংলাদেশকে হেফাজত করুন।

“তখন সেই লক্ষ লক্ষ মানুষ ডুকরে কেঁদে উঠেছিল। স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বের সঙ্গে বাংলাদেশ ও জিয়াউর রহমান একাকার হয়ে গিয়েছিল। সেই কারণে জিয়া, জিয়ার দর্শন, জিয়ার ধানের শীষ বাংলাদেশের মানুষের কাছে আজও এতো প্রিয়।”

স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, “অতীতে যে কটা নির্বাচন প্রত্যেকটাতে প্রমাণিত হয়েছে যে, সরকারি দল, যারা এখন দেশ পরিচালনা করছে তারা বুঝতে পেরেছে জনগণ যদি ভোট দিতে পারে তাহলে বিএনপিকে ক্ষমতায় বসাবে। এজন্য জনগণকে ভোট দেয়ার সুযোগ দেয়নি তারা।

“আজকে করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বকে কাবু করে ফেলেছে। এই ধরনের মহামারীর পরে রাজনৈতিক-সামাজিক এবং বিশ্ব ব্যবস্থায় পরিবর্তন আসে। আমি প্রত্যাশা করব এই পরিবর্তনে যাতে করে বাংলাদেশে সত্যিকারভাবে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা হয়, যাতে করে অর্থনৈতিক মুক্তি, যার জন্য জনগণ মুক্তিযুদ্ধ করেছিল, যাতে করে সামাজিক যে দুরাবস্থা, যে লুটেরা ব্যবসা-বাণিজ্য চলছে সেসব দূর হয়। সেজন্য বিএনপির নেতাকর্মীরা আছেন তাদের প্রতি আমরা আহ্বান আপনারা ঐক্যবদ্ধ থাকেন।”