তালায় জাতপুর – খেজুরবুনিয়া রাস্তা মরণ ফাঁদে পরিণত

প্রকাশিত: ৩:১৬ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩, ২০২১

বি এম বাবলুর রহমান-তালা সাতক্ষীরা

তালায় জাতপুর – খেজুর বুনিয়া রাস্তার বেহাল দশা, ভোগান্তি চরমে দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় তালা উপজেলার বেশিরভাগ রাস্তার অবস্থা শোচনীয়। এতে চলাচলে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন পথচারীরা।

সাতক্ষীরা জেলার তালা উপজেলায় রাস্তা সংস্কারের উদ্যোগ গ্রহন করতে কোন মহলের নজরদারি নেই। উপজেলায় সরেজমিন গিয়ে দেখা গেছে, রাস্তাগুলোর কার্পেটিং উঠে গিয়ে বড়, বড়, খানাখন্দে পরিণত হয়েছে। অনেক জায়গায় রাস্তার দু’ধারের মাটি সরে গিয়ে রাস্তাগুলো ভেঙে পড়েছে। ব্যাটারিচালিত ভ্যান, মোটরসাইকেল ,পণ্যবাহী ট্রাক,ও পথচারীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে । সামান্য বৃষ্টিতেই রাস্তাগুলো ডুবে গেছে।

স্থানীয়রা জানান, তালা উপজেলার একটি বানিজ্য নগর জাতপুর বাজার ।পাইকগাছা ও কয়রা থেকে পণ্যবাহী ট্রাক পন্য দিয়ে এই রাস্তা দিয়ে নিয়োমিত চলাচল করে। তাছাড়া দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম দুগ্ধ উৎপাদন অঞ্চল তালা উপজেলার জেয়ালা নলতা গ্রাম এখানেই অবস্থিত মিল্কভিটা তাদের দুধ প্রতিদিন জেলা সদরে ও বিভাগীয় শহর খুলনাতে দিতে হয়। ব্যাস্থতম এই রাস্তাটি চলাচলের অনুপযোগী হয়ে উঠেছে । নিয়োমিত মালবাহী ট্রাক গর্তের মধ্যে পড়ে আটকে পড়েছে তার ফলে চলাচল ব্যাহত হচ্ছে ।
এছাড়া আঠারো মাইল থেকে পাইকগাছা ( কবি সেকেন্দার আবু জাফর রোড় ) সংষ্কারের কাজ চলমান থাকায় পাইকগাছা, কয়রা এ দুই উপজেলা থেকে জরুরী চিকিৎসা সেবা নেওয়ার রোগীদের আনা নেওয়ার জন্য বিকল্প হিসেবে বেছে নিতে হচ্ছে এই চলাচলের অনুপযোগী রাস্তাটি।

সরেজমিনে গিয়ে ভ্যানচালক শাহাদাত হোসেন বলেন আমি ভ্যান চালিয়ে সংসার চালায় এক দিন কাঁচা মাল নিয়ে জাতপুর বাজারে আসলেই ভ্যান নষ্ট হয়ে যাই। রাস্তা এমন দশা নিয়ে তিনি অভিযোগ করে বলেন, কয়েক বছর ধরে রাস্তার করুন পরিনতি দেখার কেউ নেই,আমাদের কষ্টের কথা শুনাতে কোন নেতা এখন পাশে আসে না।শুধু ভোটের সময় আমাদের খোঁজ করে নেতারা।আমাদের খুব কষ্ট হয় একটু ভারী মাল থাকলে গাড়ি উল্টে যাই।

উপজেলার প্রকৌশলী কর্মকর্তা তালা রথীন্দ্রনাথ হাওলাদার মুঠোফোনে রাস্তার বেহাল দশার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, সাতক্ষীরা জেলা প্রকৌশলী রাস্তাটি পর্যবেক্ষণ করেছেন। খুব দ্রুত এ রাস্তাটি সংস্কারের সকল পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।