তালায় সরলতায় ফেঁসে যাচ্ছেন হাকিম শেখ

Jahid Jahid

Hasan

প্রকাশিত: ৪:২১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১, ২০২১

বি এম বাবলুর রহমান:-(তালা-সাতক্ষীরা)
তালায় সরলতার সুযোগে ব্যক্তি মালিকানা জমিতে লাগানো গাছ জামায়াত নেতার নেতৃত্বে কর্তন করার অভিযোগ উঠেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে তালা উপজেলা খড়েরডাংগা গ্রামে। বিবরণে জানা যায় ,উপজেলার তালা সদর ইউনিয়নে খড়েরডাংগা গ্রামের মৃত মমিন উদ্দীন শেখের পুত্র হাকিম শেখ পারিবারিক সূত্রে প্রাপ্ত সম্পতিতে গত ৭-৮ বছর পূর্বে একটি শিশু গাছ রোপন করেন। গাছটির কয়েক ফুট দুরে সরকারী রাস্তা। অপরপ্রান্তে পুকুর ভাঙ্গনের কারণে রাস্তাটি পুকুরে মধ্যে হারিয়ে যায়। জনস্বার্থে রাস্তা সংস্কার করার আগ পর্যন্ত হাকিম শেখ তার জমির মধ্য দিয়ে চলাচলের জন্য রাস্তা হিসাবে ব্যাবহারের অনুমতি প্রদান করেন। আর জনসাধারণের চলাচলের পথের পাশেই নিজের লাগানো গাছটি পড়ে যায়।

বিভিন্ন পদ্ধতিগত সমস্যার কারনে পুকুরের ভিতরের অংশের রাস্তাটি সংস্কার না হওয়ায় হাকিম শেখের জনস্বার্থে চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া পথটি এখন রাস্তায় পরিনত হয়ে পড়েন। উন্নয়নশীল দেশে উন্নয়ন করতে হবে সেই ধারাবাহিকতায় এলাকার জামায়াত শিবিরের নেতাকর্মীদের প্রভাবে প্রভাবিত হয়ে রাস্তা সংস্কার এর উদ্যোগ গ্রহন করেন কতৃপক্ষ। পুকুরের ভিতরে থাকা রাস্তা সংস্কার না করে কতৃপক্ষ কোন প্রকার বিবেচনা না করে হাকিমের নিজ স্বত্ব দখল কৃত জমির উপর দিয়ে রাস্তা সংস্কার করার পূর্ব প্রস্তুতি গ্রহণ করেন। শুধু এখানেই শেষ নয় রিতিমতো গাছটি সরকারী সম্পদ বলে কর্তন পূর্বক ঐ জমির উপর দিয়ে রাস্তা করার জন্য সরকারী দপ্তরে অভিযোগ করেন কিছু দুস্কৃতিকারীরা।

গত মঙ্গলবার হাকিম শেখ নিজের জমিতে রাস্তা না করা ও নিজের রোপন কৃত গাছ নিজে কর্তন করে নেওয়ার জন্য তালা থানা ও উপজেলা দপ্তরে আবেদন করেন।হাকিম শেখের আবেদন উপেক্ষা করে খড়েরডাংগা গ্রামের মৃত আলতাফ খাঁর পুত্র স্থানীয় জামায়াত নেতা বোরহান খাঁর নেতৃত্বে একই গ্রামের মৃত মমিন উদ্দীন শেখের পুত্র সিদ্দিক শেখ ও জাকির শেখ জোর পূর্বক গাছ কর্তন করেছেন বলে জানা গেছে।
ভুক্তভোগী হাকিম শেখ জানান, সে পারিবারিক ভাবে মাত্র ৪ শতক জমি পেয়েছে। তার মধ্যে পুকুর ভাঙ্গনের কারনে রাস্তাটির বিকল্প হিসাবে তার জমি ব্যাবহার হচ্ছে। এবং তার ৭-৮ বছর পূর্বে রোপন করা শিশু গাছ মঙ্গলবার ৩১ শে আগষ্ট সকালে বোরহান খাঁর নেতৃত্বে জোরপূর্বক কর্তন করে নিয়েছেন। তিনি আরো জানান জনস্বার্থে চলাচলের পথ দিয়ে এখন তার নিজের রোপণ করা গাছটি হারাতে হয়েছে।

এ বিষয়ে বোরহান খাঁ জানান ,তিনি গাছ কর্তনের সময় উপস্থিত ছিলেন না। যেহেতু থানা ও ইউএনও অফিসে অভিযোগ করেছেন।তার অভিযোগের ভিত্তিতে গাছ কর্তন করার সময় নির্ধারণ ছিলো। এজন্য পুলিশ সদস্য এএস আই শামীমের নির্দেশ মোতাবেক গাছ কর্তন করা হয়েছে। অভিযোগের বিষয়ে তালা থানার এএসআই শামীম জানান , অভিযোগের ভিত্তিতে তিনি সেখানে পরিদর্শনে গিয়েছিলেন। তবে গাছ কর্তনের কথা তিনি বলেননি । তিনি শুধু মাত্র পক্ষ দ্বয়ের মধ্যে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখার নির্দেশ প্রদান করেছেন।
তালা থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মেহেদী রাসেল ঘটনায় সত্যতা স্বীকার করে বলেন
বিষয়টি আমি শুনেছি এএসআই শামীমের কাছে। অতিদ্রুত একজন এসআই এর মাধ্যমে ঘটনাটি তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।