ত্রিপুরা যুব সমাজের দিকে তাকিয়ে আছে পুরো ত্রিপুরা জাতি

প্রকাশিত: ১২:০৩ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১, ২০২২

খোকন বিকাশ ত্রিপুরা জ্যাক,খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:

বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদের আরেকটি সহযোগী সংগঠন হিসেবে আত্মপ্রকাশ হয়েছে বাংলাদেশ ত্রিপুরা যুব কল্যাণ সংসদ। শুক্রবার (৩০সেপ্টেম্বর) সকালে খাগড়াছড়ি শহরস্থ মিলনপুরে বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদ’র কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের মিলনায়তনে আনুষ্ঠানিকভাবে পূর্ণাঙ্গ কমিটির নাম ঘোষণা করা হয়। এ সময় ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদের সাধারণ সম্পাদক স্নেহাশীষ ত্রিপুরা মিঠু এ নব-গঠিত কমিটির নাম ঘোষণা করেন। এতে আহবায়ক উল্লাস ত্রিপুরার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সুশীল জীবন ত্রিপুরা।

এ সময় নবলেশ্বর দেওয়ান লায়নকে সভাপতি , জয় প্রকাশ ত্রিপুরাকে সাধারণ সম্পাদক এবং ভিক্টর ত্রিপুরাকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে মোট ৩১ সদস্য বিশিষ্ট একটি পূর্ণাঙ্গ কমিটি নাম ঘোষণা করা হয়।
নাম ঘোষণার পরপরে অনুষ্ঠানের বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সুশীল জীবন ত্রিপুরা নব-গঠিত কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্যদের শপথ বাক্য পাঠ করান ।

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন আহবায়ক কমিটির সদস্য জন ত্রিপুরা এবং বাংলাদেশ ত্রিপুরা যুব কল্যাণ সংসদের নব-সভাপতি নবলেশ্বর দেওয়ান লায়ন’র সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সুশীল জীবন ত্রিপুরা বলেন, ত্রিপুরা সমাজের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বাংলাদেশ ত্রিপুরা যুব কল্যাণ সংসদ। সংগঠনের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যকে বাস্তবায়ন করতে সকলে নিরলসভাবে কাজ করে যেতে হবে।

অন্যান্য অতিথিরা বলেন, নবগঠিত এ সংগঠন বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদের প্রাণশক্তি হিসেবে কাজ করবে। ত্রিপুরা জাতির অস্তিত্ব রক্ষার্থে অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে। ত্রিপুরা মেয়েরাই জাত রক্ষা করবে, অন্যদিকে ত্রিপুরা ছেলেরাই দেশ রক্ষা করবে। তাহলে সুষ্ঠ ও সুন্দর সমাজ আলোকিত হবে। জাতির যেকোন ন্যায্য অধিকারে কাজ করবে। প্রত্যন্ত এলাকার ত্রিপুরা সমাজের সাথে সমন্বয় ও উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাবে। ত্রিপুরা জাতির কোন ক্ষতি ও একতা নষ্ট না হয়, এ সংগঠন তা বজায় রাখবে। ত্রিপুরা জাতির স্বপ্ন পূরণে সর্বদা কাজ করে যাবে-এমনতাই প্রত্যাশা করেন বক্তারা।

তারা আরো বলেন, ত্রিপুরা যুব সমাজরাই কাজ করলে ত্রিপুরা সমাজ উন্নয়ন হবে। ত্রিপুরা যুব সমাজের দিকে তাকিয়ে আছে পুরো ত্রিপুরা জাতি। ত্রিপুরা সমাজে জাতীয় চেতনাবোধও থাকতে হবে। কেউ পদবীর জন্য কাজ না করে থাকলে হবে না। পদ বড় নয়, কর্মই বড়- এ উক্তিকে ধারণ করে এগিয়ে যেতে হবে, কাজ করতে হবে। ত্রিপুরা শিক্ষিত যুব সমাজরাই পারবে, ত্রিপুরা সমাজকে পরিবর্তন করতে। ত্রিপুরা শিক্ষিত যুব সমাজের জ্ঞান ও মেধাকে কাজে ত্রিপুরা সমাজ অবশ্যই পরিবর্তন ও উন্নয়ন হবে।

এছাড়াও  অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাত্রিকস’র দপ্তর সম্পাদক প্রমোদ বিকাশ ত্রিপুরা, খাগড়াছড়ি সদর আঞ্চলিক শাখার সভাপতি বিপ্লব কান্তি ত্রিপুরা, রামগড় আঞ্চলিক শাখার সভাপতি হরি সাধন বৈষ্ণব, দীঘিনালা আঞ্চলিক শাখার সভাপতি ঘনশ্যাম ত্রিপুরা,  গুইমারা আঞ্চলিক শাখার সভাপতি ত্রিদ্বীপ নারায়ন ত্রিপুরা, মহালছড়ি আঞ্চলিক শাখার সাধারণ সম্পাদক বিনন্দ ত্রিপুরা, পানছড়ি আঞ্চলিক শাখার শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক নজর কান্তি ত্রিপুরা, নব গঠিত বাংলাদেশ ত্রিপুরা যুব কল্যান সংসদের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি চামেলী ত্রিপুরা, ত্রিপুরা স্টুডেন্টস্ ফোরাম, বাংলাদেশ’র কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি নয়ন ত্রিপুরা, শুভাকাঙ্খী বিবেকাময় রোয়াজা,কানাডা প্রবাসী উজ্জ্বল ত্রিপুরাসহ আরও অনেকে।