পাকিস্তানে করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড

প্রকাশিত: 11:30 AM, June 11, 2020

লকডাউন শিথিলের পর থেকেই পাকিস্তানে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা রোগীর সংখ্যা।

ইতোমধ্যেই দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখ ছাড়িয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড গড়েছে বলে জানিয়েছে তুরস্কের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদোলু এজেন্সি ও আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ডেকান ক্রনিকাল।

পাকিস্তানের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে মঙ্গলবার আনাদোলু জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ৪ হাজার ৬৪৬ জন। এদিন মারা গেছে অন্তত ১০৫ জন, যা মধ্য মার্চ থেকে রাখা একদিনের রেকর্ডগুলোর মধ্যে সর্বোচ্চ। এর আগে সর্বোচ্চ মৃত্যুর সংখ্যা ছিল ৯৭ জন।

পাকিস্তানের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে দেশটির সংবাদমাধ্যম জিও টিভি জানিয়েছে, দেশটিতে সবচেয়ে বেশি আক্রান্তের সংখ্যা পাঞ্জাব প্রদেশে। সেখানে এ পর্যন্ত ৪০ হাজার ৮১৯ জন করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। এরপর সিন্ধে ৩৯ হাজার ৫৫৫ জন, খাইবার পাখতুনে ১৪ হাজার ৬ জন ও বালুচিস্তানে আক্রান্ত হয়েছেন ৬ হাজার ৭৮৮ জন।

এছাড়া রাজধানী ইসলামাবাদে আক্রান্ত হয়েছে ৫ হাজার ৭৮৫ জন। গিলগিট-বালতিস্তানে ৯৫২ জন এবং আজাদ কাশ্মীরে ৪১২ জন আক্রান্ত হয়েছে।

এদিকে আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডওমিটারসে দেয়া তথ্যানুযায়ী, মঙ্গলবার রাত ১২টা পর্যন্ত পাকিস্তানে মোট করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ৮ হাজার ৩১৭ জন। মারা গেছেন ২ হাজার ১৭২ জন। সুস্থ হয়েছেন ৩৫ ততহাজার ১৮ জন। হাসপাতালে ও হোম কেয়ারে চিকিৎসাধীন ৭১ হাজার ১২৭ জন। এদের মধ্যে ১১১ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

লকডাউন শিথিলের পর পরই পাকিস্তানে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা হু হু করে বেড়ে গেছে। তবে ফের লকডাউন দিতে রাজি নন পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

এ নিয়ে দেশটিতে ব্যাপক সমালোচনা হলেও তার দাবি, কড়া লকডাউন দিলে দেশটির নিম্ন আয়ের শ্রেণি পেশার মানুষরা টিকে থাকতে পারবেন না। তাই করোনাকে সঙ্গী করেই জীবন চালিয়ে নিয়ে যেতে হবে।