পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ’র খাগড়াছড়ি জেলা শাখার ১৮তম কাউন্সিল সম্পন্ন

প্রকাশিত: ১০:৪৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৭, ২০২১

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:

পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ ছাত্র পরিষদ,খাগড়াছড়ি জেলা শাখার ১৮তম কাউন্সিল সম্পন্ন হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার(২৬নভেম্বর) ২দিন ব্যাপী (২৫- ২৬ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টায় পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি)’র দলীয় সঙ্গীত ‘পাহাড়ি ছাত্র-ছাত্রী দল’ গান পরিবেশনের মধ্য দিয়ে কাউন্সিলের ২য় দিনের ১ম অধিবেশন শুরু হয়। দলীয় সঙ্গীত পরিবেশন করে প্রতিরোধ সাংস্কৃতিক স্কোয়াড। সঙ্গীত পরিবেশনের সাথে সাথে পিসিপির দলীয় ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন জেলা সভাপতি সমর চাকমা, সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি ও ইউপিডিএফরে অন্যতম জেলা সংগঠক বিপুল চাকমা।

১৮তম জেলা কাউন্সিল’র আয়োজিত ছাত্র সমাবেশে বক্তারা বলেন,সমাজের কাছে একটি সংগ্রামী চেতনা, একটি আর্দশ, একটি প্রতিবাদের ঠিকানা। এই আদর্শিক সংগঠনের ওপর রয়েছে জাতির এক মহান গুরু দায়িত্ব। এই দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে আজ অবধি পাহাড়ি ছাত্র পরিষদকে বহু ত্যাগ স্বীকার করতে হয়েছে। বহু আত্ম বলিদান দিতে হয়েছে।

গত ২৫ নভেম্বর অনুষ্ঠিত কাউন্সিলের ১ম অধিবেশেনে সংগঠনের বার্ষিক সম্মেলনের নিয়ম অনুযায়ী জেলা শাখার নরেশ ত্রিপুরা, শান্ত চাকমা, টনক চাকমা যথাক্রমে সাংগঠনিক, অর্থ ও দপ্তর সম্পাদকের রিপোর্ট উপস্থিত প্রতিনিধি পর্যবেক্ষকদের সামনে পেশ করেন। পেশকৃত রিপোর্টের ওপর প্রতিনিধিবৃন্দরা সংগঠনের গণতান্ত্রিকতা মেনে জবাবদিহিতা, সমালোচনা-আত্মসমালোচনা ও সাংগঠনিক কাজের গতিশীলতা নিয়ে জোরালো মতামত তুলে ধরায় অধিবেশন প্রাণবন্ত হয়ে উঠে। একে একে মতামত প্রদানের পর তুমুল করতালির মাধ্যমে প্রতিনিধিরা রিপোর্টসমূহ পাশ করেন।

এসময় জেলা কমিটি’র রিপোর্ট প্রদান সম্পন্ন হলে প্রতিনিধিবৃন্দ স্ব-স্ব শাখার সাংগঠনিক রিপোর্ট এবং সংগঠনের কার্যক্রম প্রসারিত করার লক্ষে সুচিন্তিত যুগপোযোগী প্রস্তাবনা তুলে ধরেন।এরপর জাতীয় মুক্তি সংগ্রামে আত্মবলিদানকারী সকল শহীদদের স্মরণে দাঁড়িয়ে ২ মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

দ্বিতীয় দিনের ১ম অধিবেশেনে পিসিপি’র জেলা সাধারণ সম্পাদক নিকেল চাকমার সঞ্চালনায় ও সমর চাকমার সভাপতিত্বে মঞ্চে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন ইউনাইটেড পিপল্স ডেমোক্রোটিক ফ্রন্টের অন্যতম সংগঠক বিপুল চাকমা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় সভাপতি অংগ্য মার্মা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সদস্য রিমি চাকমা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সুনিল ত্রিপুরা ও পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ চট্টগ্রাম বিশ^বিদ্যায় শাখার আহ্বায়ক মিটন চাকমা প্রমূখ। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক নরেশ ত্রিপুরা।

এসময় বক্তারা আরো বলেন, পার্বত্যঅঞ্চলের অন্যায় নির্যাতন, তল্লাশি, গ্রেফতার, মামলা-হামলা, অপহরণ, ধর্ষণ, হত্যা, ভুমি বেদখল ছাত্র সমাজ কখনো মেনে নিতে পারে না। এই নিপীড়ন থেকে মুক্তি পেতে ছাত্র সমাজের সাহসী অবস্থান জাতি দাবি করে। ছাত্র সমাজকে সংগ্রামী ইতিহাস ভুলিয়ে দিতে একটি মহল যে ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে তা নস্যাৎ করে দিতে হবে। সকল অন্যায় ও অবিচারের প্রতিবাদ করতে হবে।পার্বত্য চট্টগ্রামের চলমান ন্যায়সঙ্গত প্রকৃত আন্দোলনকে ধ্বংস করে দিতে একটি মহল নিত্য নতুন পরিস্থিতি তৈরি করা হচ্ছে।পৃথিবীর যে প্রান্তেই আন্দোলন সংগ্রাম বিপ্লব সংঘটিত হয়েছে তার ইতিাহাস এটাই বলে। পার্বত্য চট্টগ্রামের ছাত্র সমাজের সংগ্রামের ক্যানভাসে বহু গৌরবোজ্জ্বল সংগ্রামের ইতিহাস রয়েছে।