প্রতি ব্যারেলে তেলের দাম বেড়ে ১১৩ ডলার ২ সেন্টে পৌঁছেছে

প্রকাশিত: ১০:৩৬ অপরাহ্ণ, মার্চ ২, ২০২২

ইউক্রেন দ্বন্দ্বের তীব্রতা বৃদ্ধির মধ্যে রাশিয়ান ব্যাঙ্কের উপর প্রবল নিষেধাজ্ঞার পরে সরবরাহ ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কায় বুধবার বিশ্ব বাজারে তেলের দাম বেড়েছে। রয়টার্স জানিয়েছে, ব্যবসায়ীরা ইতোমধ্যেই বাজারে বিকল্প তেলের উৎস খুঁজতেছেন।
বুধবার ব্রেন্ট ক্রুড তেল ৮ ডলারের মতো বেড়ে ১১৩ ডলার ২ সেন্ট প্রতি ব্যারেলে পৌঁছেছে। ২০১৪ সালের জুনের পর থেকে যা সর্বোচ্চ। এর পরে দাম সামান্য কমে ১১১ ডলার ৭৫ সেন্ট প্রতি ব্যারেল বিক্রি হয়। ইউএস ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট অপরিশোধিত তেল ৭ ডলার ৩৪ সেন্ট বা ৭ শতাংশ বেড়ে প্রতি ব্যারেল ১১০ ডলার ৭ সেন্টে পৌঁছেছে, এর আগে আগস্ট ২০১৩ এর পর থেকে এটি সর্বোচ্চ।

ওয়েস্টপ্যাক অর্থনীতিবিদ জাস্টিন স্মার্ক জানিয়েছেন, ‘বাণিজ্যে বিঘ্ন মানুষকে আতঙ্কিত করছে।’ তিনি বলেন, ‘বাণিজ্য অর্থ ও বীমা সংক্রান্ত সমস্যাগুলো – যেগুলো সমস্তই কৃষ্ণ সাগর থেকে রফতানিকে প্রভাবিত করছে। সরবরাহের ধাক্কা উন্মোচিত হচ্ছে।’ রাশিয়ান তেল রফতানির উপর বিশ্বব্যাপী সরবরাহের প্রায় 8 শতাংশই নির্ভর করে।

এক্সন মবিল মঙ্গলবার বলেছে যে, ইউক্রেনে মস্কোর আক্রমণের ফলে এটি রাশিয়ার তেল ও গ্যাস কার্যক্রম থেকে বেরিয়ে আসবে। এই সিদ্ধান্তের ফলে সংস্থাটি রাশিয়ার সুদূর প্রাচ্যের সাখালিন দ্বীপে বৃহৎ উৎপাদন সুবিধাগুলি পরিচালনা থেকে সরে আসবে।সেই সময়ে, পশ্চিমা শক্তিগুলো সরাসরি জ্বালানি রফতানির উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ না করলেও, নিউইয়র্ক এবং মার্কিন উপসাগরের হাবগুলিতে মার্কিন ব্যবসায়ীরা রাশিয়ান অপরিশোধিত তেল পরিহার করছে।

‘ক্রেতারা লোকেরা রাশিয়ান ব্যারেলগুলোকে স্পর্শ করছে না। আপনি এখনই জাহাজে রাশিয়ার কিছু তেল দেখতে পাচ্ছেন, তবে সেগুলো আক্রমণের আগে কেনা হয়েছিল। এর পরে খুব বেশি কিছু হবে না,’ নিউইয়র্ক হারবারের একজন ব্যবসায়ী রয়টার্সকে বলেছেন। রাশিয়ার বিরুদ্ধে পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞা ইউরাল অশোধিত তেল সরবরাহে প্রভাব ফেলতে পারে এই আশঙ্কায় রাষ্ট্র-চালিত ভারতীয় শোধনাগার ভারত পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন এপ্রিলের জন্য মধ্যপ্রাচ্যের উৎপাদকদের কাছ থেকে অতিরিক্ত তেল চাইছে।

শীর্ষ তেল রপ্তানিকারক দেশ সৌদি আরব এপ্রিলে এশিয়ার জন্য অপরিশোধিত তেলের দাম দ্রুত বৃদ্ধি করতে পারে, বাণিজ্য সূত্র জানায়, রাশিয়ার উপর নিষেধাজ্ঞার কারণে বৈশ্বিক সরবরাহের অর্থায়ন এবং শিপিং সমস্যাগুলোর উপর কঠোর হওয়ার কারণে বেশিরভাগ গ্রেডের পার্থক্য সর্বকালের উচ্চতায় পৌঁছেছে।

মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক শক্তি সংস্থার সদস্য দেশগুলো মূল্য নিয়ন্ত্রণে বাজারে সমন্বিতভাবে ৬০ মিলিয়ন ব্যারেল তেল ছাড়তে সম্মত হয়েছে।বিশ্লেষকরা বলেছেন যে, এটি সরবরাহ ফ্রন্টে কেবল অস্থায়ী স্বস্তি দেবে।
স্মার্ক বলেছেন‘তারা মূল্য বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করেছে, তবে আপনি যদি সবকিছু আগের অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে চান তবে, আপনার আরও টেকসই কিছু দরকার,’।