বার্সাকে পেছনে ফেলে আবারও শীর্ষে রিয়াল মাদ্রিদ

প্রকাশিত: 10:04 AM, June 25, 2020

লা লিগায় জমে উঠেছে বার্সা রিয়াল মহারণ। তবে ম্যাচ প্রতি হিসাবে এগিয়ে রিয়াল মাদ্রিদ ই।
২৪ ঘন্টা আগে বার্সেলোনা জেতায় চাপটা বেড়ে যায়। কিন্তু রিয়াল মাদ্রিদকে কিছু টের পেতে দেননি সার্জিও রামোস ও ভিনিসিয়ুস। দুজনের গোলে কাল রাতে রিয়াল মায়োর্কাকে ২-০ গোলে হারিয়ে টেবিলের শীর্ষে উঠে এসেছে জিনেদিন জিদানের দল।

এডেন হ্যাজার্ড ও ভিনিসিয়ুকে কাল জুটি বেঁধে খেলার সুযোগ করে দিয়েছিলেন জিদান। মাঝমাঠে লুকা মদরিচ ও ফেদে ভালভার্দেকে রেখে আক্রমণে গ্যারেথ বেল ও করিম বেনজেমাকে একাদশে খেলান ফরাসি কোচ। এমন আক্রমণভাগ থেকে যা ঘটার সেটাই পেয়ে যান জিদান ১৯ মিনিটে।

মায়োর্কা বক্সের বাঁ প্রান্তে মায়োর্কা ডিফেন্ডারদের খেলিয়ে ভিনিসিয়ুসকে পাস দেন মদরিচ। গোলরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে ‘চিপ’ করে বল জালে পাঠান এ ব্রাজিলিয়ান। দ্বিতীয়ার্ধে ১০ মিনিটের মাথায় ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিজেদের হাতে তুলে নেয় রিয়াল। ফ্রি-কিক থেকে গোল করেন রামোস। ২০০৬-০৭ মৌসুমের পর লা লিগায় প্রথম ডিফেন্ডার হিসেবে ন্যূনতম ৮ গোল করলেন রামোস (৯)।

ম্যাচ শেষে রিয়াল কোচ জিদান জানালেন, ফ্রি-কিক থেকে গোল করার চেষ্টাটা বেশ আগে থেকেই করছেন রামোস, ‘সে অনুশীলনে প্রচুর চেষ্টা করেছে। ফ্রি কিক থেকে গোল করাটা তার ভাবনায় ছিল। সে আমাদের নেতা। তার এখানেই (রিয়াল) থাকা উচিত, এখানেই অবসর নেওয়া উচিত।’

কিন্তু রামোস খেপেছেন জেরার্ড পিকের ওপর। শীর্ষস্থান (৩১ ম্যাচে ৬৮ পয়েন্ট) দখলের পর বার্সা তারকাকে পরোক্ষভাবে এক হাত নিতে ছাড়েননি রামোস। এর আগে পিকে রিয়ালের প্রতি রেফারিদের দুর্বলতার অভিযোগ করেছিলেন। এর জবাব দিলেন রামোস, ‘সংবাদমাধ্যমে অনেক শোরগোল হচ্ছে কারণ আমরা শীর্ষে। এর আগে এত কথা হয়নি। আমরা এসবে পাত্তা দেই না। মনে হয় না রেফারিরাও প্রভাবিত হয়। নেতা হওয়ার জন্য রেফারিদের ধন্যবাদ। মানুষের এসব ভাবনা ঠিক না।’

পয়েন্ট সমান হলেও হেড টু হেড ব্যবধানে এগিয়ে থাকায় বার্সাকে পেছনে ফেলেছে রিয়াল। রোববার এস্পানিওলের মুখোমুখি হবে জিদান বাহিনী