বিদ্যালয়ে বরকা পড়ে আসায় শাস্তি পেতে হলো ৮ম শ্রেণীর ছাত্রীকে

প্রকাশিত: ৬:৩০ অপরাহ্ণ, জুলাই ৩১, ২০২২


হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

হবিগঞ্জ শহরের বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ড্রেস পরে স্কুলে না এসে বোরকা পড়ে আসায় শাস্তি পেতে হল ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী সাদিয়া আক্তারকে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষিকা মৌসুমী রায়কে শোকজ করা হয়েছে। আগামী ৭ দিনের মধ্যে ওই শিক্ষিকাকে কারণ দর্শানোর জন্য বলা হয়েছে। শিক্ষিকা মৌসুমী রায় ওই স্কুলের একজন খন্ডকালীন শিক্ষক বলে জানা গেছে।

গত বৃহস্পতিবার এ ঘটনাটি ঘটলেও পরদিন শুক্রবার সাপ্তাহিক বন্ধ হওয়ায় শনিবার বিষয়টি নিয়ে আলোচনায় বসেন ওই স্কুলের শিক্ষকবৃন্দ। পরে তারা কারণ দর্শানোর বিষয়ে নোটিশ প্রদান করেন। সাদিয়া আক্তার শহরের মাহমুদাবাদ এলাকার বাসিন্দা।

জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার সাদিয়া আক্তার নামে ওই ছাত্রী স্কুলের ড্রেস না পরে স্কুলে যান। এসময় বিষয়টি নজরে আসে শিক্ষিকা মৌসুমী রায়ের। পরে তিনি ওই ছাত্রীকে ড্রেস না পরে আসার কারণে শাস্তি প্রদান করেন। পরে বিষয়টি ওই ছাত্রীর পরিবার থেকে স্কুল কর্তৃপক্ষকে মৌখিক ভাবে জানানো হয়। যদিও স্কুল ছাত্রীর দাবী, বোরকা পরে স্কুলে আসায় তাকে শাস্তি দেয়া হয়েছে। শনিবার বিষয়টি নিয়ে জরুরি আলোচনায় বসে স্কুলের শিক্ষক শিক্ষিকাগণ।
আলোচনা শেষে তারা ওই শিক্ষিকাকে শোকজ করেন এবং আগামী ৭ দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর জন্য নোটিশ দেয়া হয়।

এ বিষয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা রোকেয়া খানম জানান, বিষয়টি জানার পর তাৎক্ষণিক আমি শিক্ষকদের নিয়ে জরুরি আলোচনায় বসি। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ওই শিক্ষিকাকে শোকজ এবং ৭ দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর জন্য বলা হয়েছে। তিনি বলেন, পরবর্তীতে সন্তোষজনক জবাব না পেলে বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জানতে চাইলে জেলা শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ রুহুল্লাহ জানান, বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে খোঁজ খবর নিয়ে দেখছি। তবে অভিযুক্ত শিক্ষিকা মৌসুমী রায় এ ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন।