বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের সনদপত্র ও পুরস্কার বিতরণ করেছে জেলা সরকারি গণগ্রন্থাগার খাগড়াছড়ি

প্রকাশিত: ১:৩০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১, ২০২১


খোকন বিকাশ ত্রিপুরা জ্যাক,খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ি জেলার সরকারি গনগ্রন্থাগারের আয়োজনে ২০২১সালের ১৭ মার্চ জাতীয় শিশু দিবস,২৬মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস,বাংলা নববর্ষ-১৪২৮,জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১২২তম জন্মবার্ষিকী ও ১৫আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে সনদপত্র ও পুরস্কার বিতরণ করা হয়েছে।

বুধবার(১সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টায় জেলা সরকারি গণগ্রন্থাগার অডিটোরিয়ামে “পড়ব বই,গড়ব দেশ,বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ”এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে ২০২১ সালের বিভিন্ন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত বিভিন্ন প্রতিযোগিতার ৬২জন বিজয়ীদের মাঝে সনদপত্র ও পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

এসময় অনুষ্ঠান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ও আহ্বায়ক নিলোৎপল খীসা,খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের অবসর প্রাপ্ত সহযোগী অধ্যাপক মধুমঙ্গল চাকমা,খাগড়াছড়ি জেলার মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার উত্তম খীসা,জেলা সরকারি গণগ্রন্থাগারের লাইব্রেরিয়ান ওয়েন চাকমা,সভাপতিত্ব করেন পার্বত্য জেলা পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ বশিরুল হক ভুঁঞা।

এসময় জেলা সরকারি গণগ্রন্থাগারের জুনিয়র লাইব্রেরিয়ান রিকেন চাকমার সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি বক্তব্যে বলেন,আলোকিত মানুষ হতে হলে বই পড়ার কোন বিকল্প নেই,বই পড়ুন,আলোকিত মানুষ হোন,বঙ্গবন্ধুর সোনালী স্বপ্ন কে বাস্তবায়ন করুন।আলোকিত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলুন।

এসময় জেলা সরকারি গণ গ্রন্থাগারের লাইব্রেরিয়ান ওয়েন চাকমা বলেন,পাবলিক লাইব্রেরি বা গণ গ্রন্থাগার জনগনের বিশ্ববিদ্যালয়,সমাজের সকল স্তরের লোকের চাহিদা পূরণের জন্য এর উৎপত্তি ও বিকাশ।গ্রন্থাগার মানুষের জ্ঞান,বিনোদন ও নান্দনিক উপভোগের নানান চাহিদা পূরণের সহযোগিতা করে থাকে। আপনারা সকলেই গণ গ্রন্থাগারে এসে বই পড়ুন।

এদিন জেলা থেকে নতুন “য়াক বাকসা গণগ্রন্থাগার ও তালকাতাল স্রোংগণগ্রন্থাগার নামে দুটি পাঠারের নিবন্ধন পত্র প্রতিনিধিদের হাতে তুলে দেয়া হয়। এসময় জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে প্রতিযোগিতায় বিজয়ী,তাঁদের অভিভাবক ও বিভিন্ন গণগ্রন্থাগার/পাঠাগারের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।