ভর্তুকির সার কালোবাজারিতে গ্রেফতার ৫

প্রকাশিত: ৫:২৬ অপরাহ্ণ, জুন ২৬, ২০২১

আহসান হাবিব শিমুল (আদমদীঘি প্রতিনিধি)

বগুড়ার আদমদিঘী উপজেলার কৃষকদের জন্য বরাদ্দ এবং উত্তোলন করা সরকারের ভর্তুকির সার কালোবাজারে বিক্রির সময় ৩৫৩ বস্তা সার উদ্ধারসহ ৫ ডিলারকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, আদমদিঘী উপজেলা সদরের সার ডিলার এমদাদুল হক, নওশাদ আলী, ফজলুল হক, এহসানুল করিম এবং পাশের নন্দীগ্রাম উপজেলার সার ডিলার রুহুল আমিন। এদের মধ্যে নন্দীগ্রামের ডিলার ওই সারের ক্রেতা এবং বাকি ৪ জন আদমদিঘীর ডিলার ও কালোবাজারে বিক্রেতা।

জানা গেছে, শনিবার সকালে র‍্যাব-১২, বগুড়ার সদস্যরা নন্দীগ্রামে ওই পরিমান ট্রিপল সুপার ফসফেট (টিএসপি) সার ও সার বহনকারী ট্রাক আটক করে। এসময় কালোবাজারে ভর্তুকির সার বেচাকেনার অভিযোগে ওই ৫ ডিলারকে গ্রেফতার করে। র‍্যাব-১২, বগুড়ার একটি সূত্র জানায়, ডিলারশীপের সুযোগে কালোবাজারীরা সিন্ডিকেট করে সরকারের নিকট থেকে ভর্তুকি মূল্যে পাওয়া সারগুলো আদমদীঘি এলাকার কৃষকদের মাঝে বিক্রি না করে বেশি মুনাফার লোভে অন্য উপজেলায় কালোবাজারে বিক্রি করে আসছে। এই সিন্ডিকেট সান্তাহার বাফার গোডাউন থেকে টিএসপি সারগুলো উত্তোলন করে নন্দীগ্রাম উপজেলার সারের ডিলার রুহুল আমিনের নিকট বিক্রি করছে এমন খবর পেয়ে তারা অভিযান পরিচালনা করেন। এসময় বিক্রিত ওই পরিমান সার উদ্ধার ও ট্রাক জব্দ করে এবং এ ঘটনার সাথে জড়িত ৫ ডিলারকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এ বিষয়ে আদমদিঘী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জালাল উদ্দীন বলেন, সার কালোবাজারে বেচাকেনার ঘটনাস্থল আমার থানা এলাকার বাহিরে ঘটায় বিষয়টি আমার তেমন জানা নেই। আদমদীঘি উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবীদ মিঠু চন্দ্র অধিকারি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।