মাটিরাঙ্গায় গলায় ফাঁস খেয়ে গৃহবধুর আত্মহত্যা

প্রকাশিত: ৬:২৭ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩০, ২০২১

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা উপজেলার পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডে ডাক্তার পাড়ায় সালমা আক্তার(২৭)নামে তিন সন্তানের মা গলায় ফাঁস খেয়ে আত্মহত্যা করেছে।

সোমবার(৩০আগস্ট) সকাল আনুমানিক ১১টার দিকে নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।জানা যায় নিহত সালমা আক্তার ডাক্তার পাড়ার বাসিন্দা মোহাম্মদ হোসেন লিটনের স্ত্রী। নিহতের স্বামী মাটিরাঙ্গার পূর্ব খেদাছড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মরত আছেন।

স্থানীয়রা জানায়, স্বামী সকালে স্কুলে চলে যাওয়ার পর নিজ বাড়ির রান্না ঘরে গলায় ফাঁসি দিয়ে আত্মহত্যা করে সালমা। হঠাৎ মায়ের ঝুলন্ত লাশ দেখে সন্তানরা চিৎকার ও কান্নাকাটি করলে প্রতিবেশীরা এসে দেখে। পরে তাকে (সালমা) উদ্ধার করে মাটিরাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মিল্টন ত্রিপুরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মাটিরাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাক্তার মিল্টন ত্রিপুরা বলেন, ‘হাসপাতালে আসার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে

নিহতের স্বামী মোহাম্মদ হোসেন লিটন জানান, একমাস আগে আমার স্ত্রী তৃতী কন্যা সন্তানের মা হয়েছে। তখন তৃতীয় কন্যা সন্তানের বিষয়টি জানার পরপরই তিনি মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন। এ জন্য তার চিকিৎসাও চলছিল।

ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে মাটিরাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ আলী বলেন, নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য খাগড়াছড়ি জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে নিহতের লাশ পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হবে।