রামগড়ে গর্ভবতী এক মায়ের পেটে লাথি মেরে আহত করেছে সিএনজি চালক

Jahid Jahid

Hasan

প্রকাশিত: ৯:৫৩ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২২, ২০২১


খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ি জেলার রামগড় উপজেলায় সিএনজি চালক মোঃ সাইফুল বাকবিতণ্ডায় এক পর্যায়ে এক গর্ভববতী মায়ের পেটে লাথি মেরে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা যায় অভিযুক্ত ব্যক্তি রামগড়র ২নং পৌর ওয়ার্ডের গর্জনতলী এলাকার বাসিন্দা।

রবিবার (২২আগস্ট) দুপুর প্রায় ১২টা ৩০মিনিটে রামগড় বাজারে পিলাকঘাট ষ্টেশনে এ ঘটনা ঘটে। আহত ব্যক্তি মাটিরাঙ্গা উপজেলার সদর ইউনিয়ন ৯নং ওয়ার্ডের শ্রাবণ চদ্র পাড়ার বাসিন্দা তপন ত্রিপুরার স্ত্রী প্রত বালা ত্রিপুরা। গর্ভববতী মা বর্তমানে রামগড় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

জানা যায়, ওই মহিলাটি প্রতিদিনের ন্যায় জুম পাহাড় থেকে শাক-সবজি নিয়ে বাজারে বিক্রির জন্য আসে। পরে স্টেশনে সিএনজি চালকের সাথে কথা বলে পরিবহনে রাখা হয় । তথ্যমতে, তখন মহিলাটি চালককে বলেছিল যে, তিনি পা ধুয়ে গাড়িতে উঠবে। বলার পরে মহিলা পা ধুয়ে নিতে গেলে ততক্ষণে চালক অপেক্ষা করতে না পেরে গর্ভবতী মায়ের শাক-সবজিসহ আরেক যাত্রীকে নিয়ে বাজারে চলে যায়। পরে ওই মহিলাটি এসে দেখি, তার শাক-সবজি বস্তাও নেই, সিএনজি গাড়িও নেই। তখন সাথে সাথে তিনি মোটর সাইকেলে করে সোজা বাজারে চলে আসে, বাজারে এসে ওই সিএনজি চালকের সাথে একটু কথা বাকবিতণ্ডা হয়। পরে এক পর্যায়ে সিএনজি চালক ওই গর্ভবতী মায়ের পেটে ঘুষি ও লাথি মেরে আহত করেছে বলে জানা যায়। পরে গর্ভবতী মহিলাকে স্থানীয়রা রামগড় হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

তবে প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত আহত পরিবার ও সিএনজি সমিতির সাথে আলোচনা চলছে বলে জানা যায়।