রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চলছেই,বাদ যায় নি হাসপাতাল ও

প্রকাশিত: ৮:০৩ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ২, ২০২২

হামলার ষষ্ঠ দিনে ভয়াবহ ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় কেঁপে ওঠে রাজধানী কিয়েভ।মঙ্গলবার অন্তত তিনটি ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় রাশিয়া। কিয়েভ বাদেও দেশটির পূর্বাঞ্চলীয় শহর খারকিভে এদিন রুশ হামলায় কমপক্ষে ১০ জন নিহত হন। আহত হন কমপক্ষে ৩৫ জন। সোমবারও শহরটিতে রুশ আগ্রাসনে ১১ জন নিহত হন।

মঙ্গলবার কিয়েভের বেবিন ইয়ার স্মৃতিসৌধের কাছে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়। হামলা হয় কিয়েভ টিভি টাওয়ারে। বাদ যায়নি প্রসূতি ক্লিনিকও।
বেবিন ইয়ার স্মৃতিসৌধে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার তীব্র সমালোচনা করেছেন দেশটির প্রধান রাব্বি (ইহুদি সম্প্রদায়ের ধর্মীয় নেতা) মোশে রেউভেন আজমান। নিজ ফেসবুক পেজে দেওয়া এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, ‘এখানে যুদ্ধাপরাধ সংঘটিত হচ্ছে।’

‘রাশিয়ান সেনাবাহিনী, যারা ১৯৪১ সালে ফ্যাসিস্টদের সঙ্গে লড়াই করেছিল, তারা কিয়েভ, খারকিভ, ওডেসার বেসামরিক লোকদের ওপর নির্বিচারে বোমা বর্ষণ করছে। এইমাত্র বেবিন ইয়ারে গোলা বর্ষণ হয়েছে। তিনটি ক্ষেপণাস্ত্র এখানে আঘাত হেনেছে।’

তিনি বলেন, বেবিন ইয়ার একটি পবিত্র জায়গা। যেখানে দুই লাখ নিরীহ মানুষ চিরনিদ্রায় শায়িত আছে। আমি ক্রমাগত ইহুদিদের কাছ থেকে কল পাচ্ছি। শুধু ইহুদি নয়, ইউক্রেনীয় এবং রাশিয়ানরা, কিয়েভজুড়ে সাহায্যের আর্তনাদ শোনা যাচ্ছে। তাদের মানবিক সাহায্যের প্রয়োজন।

‘আমি দীর্ঘদিন ধরে নীরব ছিলাম, আমি আর থাকব না। আমি আপনাকে বলছি, প্রিয় রাশিয়ানরা, প্রিয় ইহুদিরা, যারা সামরিক বাহিনী সঙ্গে জড়িত; মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে। এটা বন্ধ করুন। আমি মরতে ভয় পাই না। আমি দুঃস্বপ্নেও কল্পনা করতে পারি না যে রাশিয়ার গোলাগুলিতে আমি মারা যেতে পারি‘— বলেন মোশে রেউভেন আজমান।