শার্শায় পাওনা টাকা আদায়কে কেন্দ্র করে দাঁড়ি টেনে ছিড়ে দিল প্রতিপক্ষ

প্রকাশিত: ১২:০২ পূর্বাহ্ণ, জুন ১৪, ২০২২

শার্শা প্রতিনিধিঃ

শার্শার শ্যমলাগাছী শ্যামলী তেল পাম্পের সামনে পাওনা টাকা আদায়কে কেন্দ্র করে
শাহাজামাল বাবু নামের এক ধর্মপ্রাণ মুসল্লির দাড়ি মোবারক টেনে ছিড়ে ফেলেন ট্রাক ড্রাইভার শফিকুল ইসলাম পাপ্পু। এবিষয়ে অপর পক্ষেরও দাঁড়ি ছেড়া সহ মারপিটের অভিযোগ রয়েছে।

সরজমিনে গিয়ে জানা যায়, ১৩ই জুন সোমবার দুপুরে ড্রাইভার পাপ্পু শ্যামলী তেল পাম্প থেকে তেল নিয়ে বের হওয়ার সময় ট্রাকের সামনে দাড়িয়ে ট্রাকটি থামান বাবু। ট্রাক থেকে ড্রাইভার নামলে বাবু বলেন আমি ট্রাকের কাছে টাকা পাবো টাকা না পেলে আমি ট্রাক ছাড়বো না। তখন বাবু বলেন তুই ট্রাকের সামনে থেকে না সরলে এখনি তোকে ট্রাক নিচে ফেলে ডলে দেবো। এক পর্যায়ে দুপক্ষের মধ্যে হাতাহাতি শুরু হলে মারামারির শেষে দেখা যায় সকলে আহত সহ শাহাজামাল বাবুর অনেক গুলো দাঁড়ি ছিড়ে ফেলেন শফিকুল ইসলাম বাবু।

ঘটনার তদন্ত পূর্বক জানা যায়, শাহাজামাল বাবুর ছেলে শান্তর শ্যামলী পাম্পের সামনে একটি মবিল পার্টসের দোকান আছে সেই সূত্রে ঢাকা মেট্রো ট- ২৪-৪২৩৯ ট্রাক মালিকের কাছে দোকানের বিল বাবদ ১৭ হাজার টাকা পাওনা ছিলো। কিন্তু পরবর্তীতে ট্রাকের পূর্বের মাহাজন মমিন উদ্দিন ট্রাকটি পাপ্পুর কাছে বিক্রয় করে দেন। ভুলবশত বাবু ঐ টাকার জন্য পাপ্পুর সাথে দ্বন্দে জড়িয়ে পরেন ও দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে এবং দুপক্ষের লোকই আহত হয়ে শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নেন।

এবিষয়ে শাহাজামাল বাবু বলেন, আমি আজ পাওনা টাকা আদায় করতে গিয়ে জীবনে মারা যাচ্ছিলাম। আজ যদি আমার দাঁড়ি না ছিড়ে আমার একটা হাত বা পা ভেঙে যেত আমি এত কষ্ট পেতাম না।

এবিষয়ে শফিকুল ইসলাম পাপ্পু বলেন, আমার কাছে কোন টাকা পাবেনা সে বরং আমাদেরকে ধরে ওখানে লোকজন ডেকে সে হেনস্থা সহ মারপিট করে। দাঁড়ি ছেঁড়ার বিষয়টি একটি অনাকাঙ্ক্ষিত দূর্ঘটনা। সে আমারও দাঁড়ি ধরে টেনে ছিঁড়েছে দিয়েছে।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত দুপক্ষেরই থানায় অভিযোগ করার প্রস্তুতি চলছিলো।