শেখ রাসেল প্রমিলা ফুটবল টুর্ণামেন্ট চ্যাম্পিয়ন পানছড়ি উপবন সমিতি

প্রকাশিত: ৯:৫০ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৫, ২০২১

খোকন বিকাশ ত্রিপুরা জ্যাক,খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ি জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড’র অর্থায়নের শেখ রাসেল প্রমিলা টুর্ণামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।এতে অংশ নেন শক্তিশালী দুটি দল- খাগড়াছড়ি ফুটবল একাডেমী ও পানছড়ি উপবন সমিতি।

বৃহস্পতিবার(২৫নভেম্বর)বিকাল সাড়ে ৩টায় ঐতিহাসিক খাগড়াছড়ি স্টেডিয়ামে এ ফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়।এতে খাগড়াছড়ি ফুটবল একাডেমিকে ১-০ গোলে হারিয়ে টুর্ণামেন্ট চ্যাম্পিয়ন হন পানছড়ি উপবন সমিতি। টুর্ণামেন্টে ১০গোল করে সর্বোচ্চ গোলদাতা হিসেবে নির্বাচিত হন ক্রানুচিং মারমা। এ ফাইনাল ম্যাচে ১গোল করে ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হন মানুচিং মারমা।এসময় প্রধান ম্যাচ রেফারি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন অংসা মারমা,সহকারী ম্যাচ রেফারি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন খুশি চাকমা, নুনু মারমা।এসময় সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন ক্যহ্লাচাই চৌধুরী।ম্যাচ শেষে চ্যাম্পিয়ন দলকে ৩০হাজার এবং রানার্স আপ দলকে ২০হাজার টাকা প্রাইজমানি দেয়া হয়েছে।

এসময় জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি ও জেলা প্রশাসক প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডে চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা।

ফাইনাল খেলায় জেলা ক্রীড়া সংস্থার যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক আজহার হীরা’র সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা বলেন,পড়ালেখার পাশাপাশি খেলাধুলারও প্রয়োজন।খেলাধুলা আমাদের সুস্থ্য ও সবল থাকতে সাহায্য করে।সুস্থ্য দেহ এবং প্রশান্ত মনের জন্য খেলার কোন বিকল্প নেই।তিনি আরো বলেন, পার্বত্য অঞ্চলের মেয়েরা ক্রীড়াঙ্গনে অনেক অবদান রেখে চলেছে। এ ধারা অব্যাহত রাখতে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের যা যা করা প্রয়োজন তা বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেয়া হবে।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু,জেলা পুলিশ সুপার ও জেলা ফুটবল উপ-কমিটির আহ্বায়ক মোহাম্মদ আবদুল আজিজ, পৌরসভার মেয়র নির্মলেন্দু চৌধুরী,সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ শানে আলম প্রমুখ।

এদিন শেখ রাসেল প্রমিলা ফুটবল টুর্ণামেন্টে পুরো ম্যাচে প্রাথমিক চিকিৎসা টিমের দায়িত্ব পালন করেন খাগড়াছড়ি ইউনিটের যুব রেড ক্রিসেন্ট’র প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত ৭জন যুব স্বেচ্ছাসেবকেরা।