ঢাকা, ১২ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ২৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ | ৬ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

শ্যামনগরে কেয়াতলার খালের জমি দখল করে চলছে ঘর নির্মাণ


প্রকাশিত: ৫:৫০ অপরাহ্ণ, জুন ১৪, ২০২৩

এম কামরুজ্জামান, শ্যামনগর সাতক্ষীরা প্রতিনিধিঃ

সাতক্ষীরা’র শ্যামনগর উপজেলার নূরনগর ইউনিয়নের রামজীবনপুর এলাকায় কেয়াতলার সরকারি খালের জমি দখল করে চলছে ঘর নির্মাণ।
এলাকাবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, একই গ্রামের মৃত রুস্তম আলী গাজীর ছেলে
মোঃ আফছার গাজী (সোনা) অবৈধ ভাবে প্রবাহমান খালের জমি দখল করে ঘর নির্মাণ সহ উক্ত ঘর সংলগ্নে বিদ্যুতের খুঁটিতে একটি ট্রান্সফরমার সহ বিদ্যুতিক সংযোগও নিয়েছেন। সরকারি খালের জমি দখলের জন্য প্রথমে ছোট ঘর এরপর বড় দখলদারি সাথে বাংলাদেশ ক্ষুদ্র মৎস্যজীবী জেলে সমিতি লিঃ এর সাইনবোর্ড ব্যবহার করে চলছে খালের জমি দখল। বর্তমান সরকারের নিরলস প্রচেষ্টায় উপজেলা ব্যাপী জলাবদ্ধতা নিরশনে পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক বিভিন্ন ভরাট হয়ে যাওয়া খাল খনন ও অবৈধ দখল উচ্ছেদ কার্যক্রমের উদ্যোগ হাতে নেওয়া হচ্ছে এবং বিভিন্ন স্থানে খাল খনন চলছে ঠিক তখনই নুরনগর এলাকায় চলছে খাল দখল করে ঘর নির্মাণের কাজ।
বিষয়টি নিয়ে আফছার গাজীর সাথে মোবাইল ফোনে কথা বললে তিনি বলেন সেখানে একটি সেচপাম্প বসানো হবে তাই খাল ভরাট করে ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে এবং এর জন্য তার নাকি উপর মহলের অনুমতি আছে। সাংবাদিকবৃন্দ খাল ভরাট করে ঘর নির্মাণের অনুমতি পত্র দেখার কথা বললে তিনি দেখাতে পারেননি। এলাকার সচেতন মহল বলছে একের পর এক এভাবেই খাল দখল করে ঘর নির্মাণ শুরু হয়েছে, এখনই যদি এগুলো বন্ধ না করা হয় তাহলে সামনের সময়গুলোতে খালের পাশে বসতি গড়ে উঠতে খুব বেশি সময় লাগবে না। এলাকাবাসীর দাবি অবৈধভাবে খাল দখল করে যারা ঘর নির্মাণ করেছে সকলকে প্রশাসনিকভাবে উচ্ছেদ করা হোক।
এবিষয়ে নুরনগর ভূমিসহকারী কর্মকর্তা মোঃ রেজাউল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন,বিষয়টি অবগত হয়েছি তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করব।