ঢাকা, ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ | ১৮ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

শ্যামনগরে দীর্ঘ ১৪ বছর পর নৈশ-প্রহরীকে চাকুরীচ্যুত করার চেষ্টা ইউএনও বরাবর অভিযোগ


প্রকাশিত: ৬:৩৬ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৩, ২০২৩


এম কামরুজ্জামান, শ্যামনগর সাতক্ষীরা প্রতিনিধিঃ

সাতক্ষীরা’র শ্যামনগরে ধুমঘাট নিম্ন মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে নৈশ-প্রহরী মুজিবর রহমান ১৪ বছর চাকুরি করার পর এমপিভুক্ত হওয়ায় চাকুরীচ্যুত ও মিথ্যা মামলার হুমকির অভিযোগ পাওয়া গেছে।
গত ২১ সেপ্টেম্বর-২২ শ্যামনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে যথাযথ প্রতিকারের দাবিতি অভিযোগ করেন মুজিবর রহমান। অভিযোগে প্রকাশ ধুমঘাট নিম্ন মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক আব্দুর রাজ্জাক এর প্রতিশ্রুতিতে গত ২০০৮ সালে এককালিন ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা দিয়ে ১৪ বছর চাকুরি করে আসছে। এবং নৈশ প্রহরী পদে অধ্যবধি পর্যন্ত কর্মরত থেকে নিজ দায়িত্ব পালন করিয়া আসিতেছে। বর্তমানে উক্ত প্রতিষ্ঠানটি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক এম,পি,ও তালিকাভুক্ত করায় অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কর্তৃক অন্যের দ্বার উদ্বুদ্ধ হইয়া মজিবর রহমানের কর্মরত পদে মোটা অংকের বাণিজ্য করিয়া এমপিও তালিকায় মুজিবর রহমানের নাম না পাঠাইয়া চাকুরীচ্যুত করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রহিয়াছে। তিনি আরো জানান, উক্ত প্রতিষ্ঠানের সহকারী শিক্ষক আছামা খাতুন দীর্ঘ ১০ বছর যাবত বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত থাকার সত্ত্বেও প্রধান শিক্ষকের সাথে সম্পর্ক রাখার কারণে তার নাম এমপিও তালিকায় প্রেরণ করে। এবং আমার নাম অত্র তালিকা থেকে পরিকল্পিত ভাবে বাদ দিয়েছে। এ ঘটনায় মুজিবর রহমান যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন । এ বিষয়ে অত্র স্কুলের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রাজ্জাকের সাথে মুঠো ফোনে কথা হলে, নৈশ প্রহরী পদে দীর্ঘদিন চাকুরি করা ও টাকা নেওয়ায় কথা স্বীকার করে বলেন বয়সের কারণে তাকে নাম পাঠানো সম্ভব হয়নি।