সারাদেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষার জন্য মানববন্ধন করেছে,বিএমএ খাগড়াছড়ি

প্রকাশিত: ৫:৩৮ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৪, ২০২১

খোকন বিকাশ ত্রিপুরা,জ্যাক,খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:

সারাদেশের বিভিন্ন জেলায় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে হামলা,মূর্তি ভাঙ্গা,ঘরবাড়িতে অগ্নি সংযোগের প্রতিবাদে ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষার জন্য মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন (বিএমএ),খাগড়াছড়ি শাখা।
রবিবার(২৪অক্টোবর)সকালে খাগড়াছড়ি আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালের প্রাঙ্গণে এ মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,খাগড়াছড়ি জেলার সিভিল সার্জন নুপুর কান্তি দাশ। এতে সভাপতিত্ব করেন, জেলা শাখার বিএমএ সংগঠনের সহ-সভাপতি ডা. সুভাষ বসু চাকমা।

মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা সিভিল সার্জন নুপুর কান্তি দাশ বলেন,জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলে এদেশের স্বাধীনতার মহান স্থপতি। তাঁর যোগ্য নেতৃত্বে এদেশ স্বাধীন হয়েছে এবং স্বাধীনতা অর্জন করেছে। বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে এদেশের সর্বস্তরের,সকল ধর্মের মানুষ তথা হিন্দু,মুসলিম,বৌদ্ধ ও খ্রিস্টানসহ সকল জাতি/ গোষ্ঠীর মানুষ মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন। এদেশকে হায়েনাদের হাত থেকে মুক্ত করার ও স্বাধীন করার জন্য স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলেন।তাঁদের সকলের আত্মত্যাগের বিনিময়ে স্বাধীন সার্বভৌম একটি রাষ্ট্র পেয়েছি। এদেশে সব ধর্মের মানুষ, সব গৌত্রের মানুষ, সকলে বাস করার জন্য সমঅধিকার আছে। সাম্প্রতিক যে ঘটনা ঘটেছে, সাম্প্রদায়িক উস্কানিমূলক ঘটনা ঘটেছে। সনাতনী হিন্দুধর্মাবলম্বীদের উপাসনালয়ে আক্রমণ হয়েছে,বাড়িঘরে,অগ্নিসংযোগ,লুটপাট,ধর্ষণ, হত্যা করা হয়েছে। আমরা চাই,এই সকল সহিংসতা বন্ধ হোক। এদেশে সকল ধর্মের মানুষ সমান অধিকার নিয়ে বাস করবে। অন্য ধর্মে কারো উপর যেন আঘাত না হানে সে ব্যাপারে সকলকে সজাগ থাকতে আহ্বান জানান এবং এ হামলায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানান।

এসময় মানববন্ধন কর্মসূচিতে জেলা বিএমএ’র সকল সদস্য ও জেলা সদর হাসপাতালে কর্মরত চিকিৎসকরা উপস্থিত ছিলেন।