সিএমএইচ পারলে অন্যরা নয় কেন?

প্রকাশিত: 7:33 PM, May 27, 2020

ডাঃ জোবায়ের আহমেদ :

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডিজি প্রফেসর আবুল কালাম আজাদ স্যার নাকি সিএমএইচে কোভিড ১৯ আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন।
এমন খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় চাউর।।

বেসামারিক স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনার মহাপরিচালক যখন নিজের অধীনস্থ কোভিড ডেডিকেটেড হাসপাতালে চিকিৎসা না নিয়ে সামরিক ব্যবস্থাপনার উপর আস্থা রাখেন, তবে সেটা কি নেগেটিভ ম্যাসেজ দেয়না???
এটা কি উনার সামগ্রিক অব্যবস্থাপনা ও অদক্ষতার চিত্র তুলে ধরছেনা??

দেশের সব ভিআইপিরা এখন সিএমএইচে লাইন ধরছেন।
কারণ বিদেশ যাত্রা বন্ধ।।
কিন্ত তারা সিএমএইচ এর উপর আস্থাশীল এটা বুঝা যাচ্ছে।।
সিএমএইচ এর ব্যবস্থাপনা চমৎকার।
ওয়াল্ড ক্লাস তারা মেইনটেইন করেন।।

সিএমএইচ পারলে অন্যরা নয় কেন?
অনেকে বলবেন তাদের বরাদ্দ বেশি।

বেসামরিক চিকিৎসা ব্যবস্থায় যা বরাদ্দ তা কি সঠিক ভাবে কাজে লাগে না লুটপাট হয়??
লুটপাট না হলে তো চিত্র সুন্দর হবার কথা ছিলো।

যদিও সিএমএইচ ৩৭ লাখ টাকার পর্দা লাগায় না, দশ লাখ টাকায় ডিজিটাল বিপি মেশিন কিনে না,তবু তারা ক্লাসি।।

কোভিড ১৯ দেশে আসায় দেশের দীর্ঘ মেয়াদে একটা লাভ হতেও পারে যদি আমরা শিক্ষা নেই।
তা হলো দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থার যে রুগ্ন ভগ্ন দশা ফুটে উঠেছে সবার চোখের সামনে,কার্যকর পদক্ষেপ নিলে আগামীতে দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থা উন্নত হতে পারে এমন ক্ষীণ আশা রাখা যেতে পারে।