হাতেনাতে চোর ধরে ফেলায় আইনজীবীকে গলা কেটে হত্যা

প্রকাশিত: 7:04 PM, June 5, 2020

রংপুরে চুরি করতে গিয়ে ধরা পড়ার পর বাড়ির মালিক আসাদুল হক (৬০) নামে রংপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের এক আইনজীবীকে গলা কেটে হত্যা করেছে এক চোর।
শুক্রবার বেলা দেড়টার দিকে নগরীর ৩২ নম্বর ওয়ার্ডের ধর্মদাস বারো আউলিয়া এলাকার নিজ বাড়ি থেকে ওই আইনজীবীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় রতন (২৬) নামে একজনকে আটক করে স্থানীয়রা পুলিশে দেন।
রতন একই এলাকার বাসিন্দা।
এলাকাবাসীর অভিযোগ, রতন মাদকাসক্ত। এর আগে চুরি করতে গিয়ে বেশ কয়েক বার ধরাও পড়েছিল।
তারা জানান, আসাদুল হক রংপুর জেলা দায়রা জজ আদালতের সিনিয়র একজন আইনজীবী ছিলেন। তার দুটি মেয়ে সন্তান রয়েছে। বড় মেয়ে অস্ট্রেলিয়ায় থাকে। আর ছোট মেয়েকে নিয়ে করোনার সময়ে ধর্মদাসের ওই বাসায় থাকতেন তিনি। শুক্রবার জুম্মার নামাজের সময় এলোকা ফাঁকা থাকায় রতন (২৬) চুরি করার জন্য বাসায় ঢুকে পড়ে। নিহত আইনজীবী আসাদুল হক টের পেয়ে তাকে আটকানোর চেষ্টা করে। রতন তখনতার হাতে থাকা ছুরি দিয়ে প্রথমে আইনজীবীর পেটে এবং পরে গলায় ছুরি চালায়।
ঘটনাস্থলেই আসাদুল হকের মৃত্যু হয়। তার রতন দেয়াল টপকে পালিয়ে যাওয়ার সময় এলাকাবাসী তাকে আটক করে তাজহাট থানায় সোপর্দ করেছে।
মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে তাজহাট থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ রোকনুজ্জামান বলেন, রতন নামে একজনকে আটক করা হয়েছে‌। কী কারণে এ হত্যাকাণ্ড এবং ঘটনার সঙ্গে আরও কেউ জড়িত আছে কি না তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রয়েছে। এ ব্যাপারে তাজহাট থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।
আইনজীবী আসাদুল হকের মৃত্যুতে রংপুর আইনজীবী সমিতি শোক প্রকাশ করেছেন।