৩০মিনিটের জন্য মেয়র হলেন কিশোরী জবা ত্রিপুরা

প্রকাশিত: ৭:৩৯ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৭, ২০২১

খোকন বিকাশ ত্রিপুরা জ্যাক,খাগড়াছড়ি :

খাগড়াছড়িতে পৌরসভার প্রতিকী হিসেবে মেয়রের দায়িত্ব পালন করলেন জবা ত্রিপুরা (১৫) নামের এক কিশোরী।

রবিবার (১৭ অক্টোবর) দুপুরের দিকে ৩০মিনিটের জন্য পৌরসভার দায়িত্ব পালন করলেন কিশোরী জবা ত্রিপুরা।এতে খাগড়াছড়ি পৌরসভার মেয়রের কক্ষে প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের গার্লস টেকওভার কর্মসূচির আয়োজন করে জাবারাং কল্যাণ সমিতি। দায়িত্ব গ্রহণের সময় মেয়র নির্মলেন্দু চৌধুরী তাকে উত্তরীয় ও ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

এসময় ৩০মিনিটের প্রতিকী মেয়রের দায়িত্ব পালনের সময় কিশোরী জবা ত্রিপুরা সাংবাদিকদের বলেন, আজকের এই প্রতিকী দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে আমি একজন কন্যা শিশু হয়েও খাগড়াছড়ি পৌরসভার মতো একটি ঐতিহ্যবাহী প্রতিষ্ঠানের নেতৃত্ব প্রদানকারীর ভূমিকা পালন করতে পেরে নিজেকে গর্বিত ও ধন্য মনে করছি। এতে আমি আরও আত্মবিশ্বাসী এবং নিজের স্বপ্ন পুরণে অঙ্গীকারাবদ্ধ হয়েছি। বর্তমানে খাগড়াছড়ি পৌরসভার অবকাঠামো, পরিবেশ ও বিনোদন এবং সৌন্দর্য্য বর্ধনে ব্যাপক কাজ চলমান রয়েছে। তবে খাগড়াছড়ি পৌরসভাকে নারী ও শিশুদের জন্য নিরাপদ ও যৌন হয়রানী বা নির্যাতন এবং বৈষম্যহীন শ্রেষ্ঠ শহর হিসেবে গড়ে তুলতে কয়েকটি প্রস্তাব উপস্থাপন করেছি।

খাগড়াছড়ি পৌরসভার অফিসিয়াল কভার ফাইলের মাধ্যমে দায়িত্ব হস্তান্তর করেন বর্তমান পৌরসভার মেয়র নির্মলেন্দু চৌধুরী ও দায়িত্ব গ্রহণ করেন ন্যাশনাল চিলড্রেনস টাস্ক ফোর্স (এনসিটিএফ) পেরাছড়া ইউনিয়ন শাখার সভাপতি ও খাগড়াছড়ি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী জবা ত্রিপুরা।

এসময় পৌরসভার মেয়র নির্মলেন্দু চৌধুরী বলেন, এই সমাজে নারীরা এগিয়ে গেলে সমাজ উপকৃত হবে, দেশ উপকৃত হবে। বর্তমান সরকার নারীদের উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছে। নারীদের বা আমাদের কন্যাদের একটু বেশি সুযোগ দিলে তারা অনেক কিছু করতে পারে। তাদের সুযোগ দেওয়া প্রয়োজন। আজ আমার খুবই ভালো লাগছে।

এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জাবারাং কল্যাণ সমিতির নির্বাহী পরিচালক মথুরা বিকাশ ত্রিপুরা, পৌরসভার সচিব খন্দকার পারভিন আক্তার, জাবারাং এর প্রকল্প সমন্বয়কারী বিনোদন ত্রিপুরা, পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর অতীশ চাকমা, সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর উক্রইঞো মারমা।

এসময় আরো পৌরসভা কর্মরত ও জাবারাং’র কর্মকর্তাবৃন্দ, জেলা এনসিটিএফ ও পেরাছড়া শাখার এনসিটিএফ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা প্ল্যান ইন্টারন্যাশনালের “গার্লস টেকওভার ” একটি আন্তর্জাতিক কার্যক্রম। কন্যা শিশুরা সমান সুযোগ এবং সমঅধিকার পেলে, বদলে দিতে পারে তাদের নিজস্ব জীবন। তাদের আশেপাশের সমাজ এবং সমাজের মানুষদের এমন বিশ্বাস থেকেই ‘গার্লস টেকওভার”কর্মসূচীর উদ্যোগ গ্রহণ এবং বাস্তবায়ন করে প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল। এই কর্মসূচীর মাধ্যমে একজন কিশোরী, কন্যা শিশু অথবা যুব নারীকে নেতৃত্ব প্রদানকারীর ভূমিকা পালন করতে সহায়তা করা হয়। যাতে করে তাদের আত্মবিশ্বাস বাড়ে এবং নিজের স্বপ্ন পূরণে সে দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হবে।