৯০ দিনের মধ্যেই রাজধানী কাবুল দখলে নিতে পারে তালেবান বাহিনী: মার্কিন কর্মকর্তা

প্রকাশিত: ১০:০১ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১২, ২০২১

আফগানিস্তানে একের পর এক প্রাদেশিক রাজধানী দখলে নিচ্ছে তালেবান যোদ্ধারা। এ পর্যন্ত নয়টি প্রাদেশিক রাজধানী চলে গেছে তাদের দখলে। পরিস্থিতি এমন যে, যেকোনো সময় দেশটির রাজধানী শহর কাবুল বিচ্ছিন্ন হয়ে যেতে পারে।

মার্কিন গোয়েন্দারা জানাচ্ছেন, তালেবান যোদ্ধারা ৩০ দিনের মধ্যে রাজধানী শহর কাবুলকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলেতে পারে এবং তা দখলে নিয়ে নিতে পারে ৯০ দিনের মধ্যেই। মূলত যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দাদের বরাত দিয়ে এ কথা বলেছেন এক মার্কিন কর্মকর্তা।

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের-নেতৃত্বাধীন বিদেশি সেনারা চলে যাওয়ার সময় থেকে আফগানিস্তানজুড়ে তালেবানের দ্রুত অগ্রগতির ফলশ্রুতিতেই কাবুল কতদিন টিকে থাকতে পারবে, তা নিয়ে নতুন এ মূল্যায়ন।
এ কর্মকর্তা বলেন, আফগান নিরাপত্তা বাহিনী আরও প্রতিরোধ গড়ে তুলে যেকোনো সময় পরিস্থিতি উল্টেও দিতে পারে।

মঙ্গলবার ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) এক কর্মকর্তা বলেছেন, তালেবান এখন আফগানিস্তানের ৬৫ শতাংশ এলাকার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিয়েছে এবং ১১টি প্রাদেশিক রাজধানী দখলে নেওয়ার হুমকি সৃষ্টি করেছে।

পশ্চিমা এক নিরাপত্তা কর্মকর্তা বলেন, পর্বতে ঘেরা কাবুলে ঢোকার সব পথ দিয়েই গাদাগাদি করে চলাফেরা করছে বাসিন্দারা। বিভিন্ন জায়গাতেই সহিংসতা থেকে মানুষের পালানো কিংবা শহরে ঢোকা চলছে হরহামেশাই। এরমধ্যে তালেবান যোদ্ধারাও সেখানে ঢুকে পড়ছে কি-না তা বলা কঠিন।

তালেবান যোদ্ধারা বুধবার বাদাখশান প্রদেশের রাজধানী ফাইজাবাদ দখল করে আফগান সরকারের কপালে ভাঁজ ফেলে দিয়েছে। বাদাখশানের প্রাদেশিক কাউন্সিলের সদস্য জাওয়াদ মুজাদ্দি বলেন, ফাইজাবাদের পতনের মধ্য দিয়ে দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের পুরোটাই তালেবানের নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে।

তালেবানের এ অগ্রযাত্রা ঠেকাতে আফগান সরকার হিমশিম খাচ্ছে। এ পরিস্থিতিতে শহরটির প্রতিরোধকারী যোদ্ধাদের উজ্জীবিত করতে মাজার-ই-শরিফে গেছেন প্রেসিডেন্ট গনি। সেখানে স্থানীয় প্রধান নেতাদের সঙ্গে তার সাক্ষাৎ করার কথা রয়েছে।